Latest News

১০ হাজার টাকায় চারচাকা গাড়ি! তৈরি করলেন শান্তিপুরের সঞ্জয়

দ্য ওয়াল ব্যুরো, নদিয়া: নিজের একটা গাড়ি হবে! এ স্বপ্ন মনে মনে পুষে রাখেন যাঁরা, তাঁদের সংখ্যাটা নেহাত কম নয়। কিন্তু কজনেরই আর ভাগ্য হয় ঝাঁ চকচকে শোরুম থেকে লাখ লাখ টাকা খরচ করে গাড়ি কেনার। শান্তিপুরের (Shantipur) বৈষ্ণবপাড়ার সঞ্জয় প্রামাণিক যদি আপনার পাশে দাঁড়ান নিঃসন্দেহে কিন্তু দুধের স্বাদ ঘোলে মিটতে পারে। সঞ্জয়বাবু ভাঙাচোরা জিনিস দিয়ে যে গাড়ি তৈরি করেছেন (Car Invented By Scrap) সেই গাড়ির দাম মাত্র দশ হাজার টাকা।

সঞ্জয়বাবু ইঞ্জিনিয়ার নন, পেশায় মণ্ডপ শ্রমিক। তবে নেশায় করেছেন অসাধ্য সাধন। লকডাউনের সময় ঘরে বসে বিভিন্ন বাতিল জিনিস দিয়ে অভাবের সংসারে ছোট ভাইপোর বায়না সামলাতে বানিয়ে ফেলেছিলেন আস্ত একটি গাড়ি। নাম দিয়েছিলেন ‘আমি একা’। গাড়িতে শুধুমাত্র চালকের আসন ছিল। পাশে কেউ বসতে পারে অতশত ভাবেননি অবিবাহিত সঞ্জয়বাবু।

তবে এবার নতুন গাড়িতে চালকের পাশে আর একটি আসন বেড়েছে। গাড়ির দরজা থেকে সিলিং, চাকা থেকে ব্যাকলাইট, হ্যান্ডেল থেকে চেসিস সবই বাতিল জিনিসপত্র দিয়েই তৈরি বলে জানালেন সঞ্জয়বাবু। তাতে কী! গাড়িতে রয়েছে হেডলাইট থেকে ইন্ডিকেটর, গান শোনার ব্যবস্থা, জলের বোতল ও লাগেজ রাখার ব্যবস্থা। আর এত কিছু, মাত্র ১০ হাজার টাকায়। তবে ব্যাটারি আর মোটর বাদে। এ দুটো কার্যকারিতা এবং সামর্থ্য অনুযায়ী লাগিয়ে দেন তিনি।
সঞ্জয়বাবু বলেন, এবারের গাড়িটি মূলত এক বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন কলেজ পড়ুয়ার অর্ডার অনুযায়ী বানানো হয়েছে। তাঁরই হাতে তুলে দেওয়ার আগে ট্রায়াল দিয়ে দেখে নিলাম। এই গাড়িতে শিশু থেকে বয়স্ক মানুষ প্রত্যেকেই নিরাপদেই যাতায়াত করতে পারেন।”

ঝালদা পুরসভা: রাজ্যের নির্দেশিকায় স্থগিতাদেশ হাইকোর্টের, আপাতত দায়িত্বে জেলাশাসক

সোমবার ট্রায়ালে বের হলে তার গাড়ির দিকে তাকাননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যায়নি। ‌বাস লরি থামিয়ে একটু চালিয়ে পর্যন্ত দেখেছেন অন্য গাড়ির চালকরা। পথচারীরা তুলেছেন সেলফি। শান্তিপুর পুরসভার সদস্য শুভজিৎ দে, পথের মাঝেই তাঁকে এই আবিষ্কারের জন্য সংবর্ধনা দিলেন। শুনলেন গাড়ি তৈরির নানান কাহিনী।

সঞ্জয়বাবুর আরেকটি নেশা আছে, তিনি বিভিন্ন গাছের শেকড় থেকে ভাস্কর্য তৈরি করেন। ঝড়ে পড়ে যাওয়া গাছের শেকড়ের অংশ দিয়ে তৈরি অসংখ্য ভাস্কর্য সাজিয়ে রেখেছেন তার ভাঙা ঘরে। চোখের সামনে পড়লেই ফেলে দেওয়া জিনিস কুড়িয়ে রাখেন তিনি। আর তা দিয়েই নানান আকর্ষণীয় কিছু তৈরির ভাবনা খেলে যায় মাথায়। তাঁর তৈরি গাড়ি ‘আমি একা’ ও এমনই ভাবনার ফসল।

You might also like