Latest News

Bus Fare: ইচ্ছেমতো বাস ভাড়ায় জেরবার শহরবাসী, টিকিট সহ এফআইআরের পরামর্শ ববির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাসে উঠলে যেমন ইচ্ছে তেমন ভাড়া (Bus Fare) নেওয়া কার্যত সন্ত্রাসের পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে বলে মত অনেকের। এই প্রশ্নে নিত্যযাত্রীদের প্রতিদিন যাতায়াতের সময়ে বাড়তি ভাড়া গুনতে হচ্ছে। শনিবার টক টু মেয়র অনুষ্ঠানে তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হল পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে (Firhad Hakim)। জবাবে মেয়র তথা মন্ত্রী জানালেন, এমন হলে কী করতে হবে যাত্রীদের।

সাধারণত টক টু মেয়র অনুষ্ঠানে ফোন আসে পুরসভার সমস্যা নিয়ে। কিন্তু এদিন বালিগঞ্জের এক ব্যক্তি পরিবহণ সমস্যার কথা তুলে ধরেন ফিরহাদ হাকিমের কাছে। জবাবে তিনি বলেন, যে বাস বেশি ভাড়া নেবে সেই টিকিট নিয়ে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করুন। তারপর সেই কপি হোয়াটসঅ্যাপ করলেই ব্যবস্থা নেবে পরিবহণ দফতর। হোয়াটস অ্যাপ নম্বর—৯৮৩০০৩৭৪৯৩।  

হানিমুনে গিয়ে খাদে পড়ে মৃত্যু নতুন বউয়ের, খুন না দুর্ঘটনা তদন্তে পুলিশ

সাধারণ রুটের বাসে এখন সরকার নির্ধারিত ন্যূনতম ভাড়া কত? সাত টাকা। মিনিবাসে কত? আট টাকা। জনসাধারণের অভিজ্ঞতা কী? দু’স্টপেজ যাওয়ার জন্য কন্ডাক্টরের হাতে ১০ টাকার নোট দিলে তিন টাকা ফেরত আসে না। উল্টে হাতে ধরিয়ে দেওয়া হয় ১০টাকার একটা টিকিট। কেউ কেউ আবার ১০টাকা দিলেও ভ্রু কুঁচকে তাকান। মেজাজের সঙ্গে বলেন, ‘দাদা আরও দু’টাকা লাগবে!’

সেই মেজাজের সামনে কেউ রুখে দাঁড়ান। কেউ বা গন্তব্যে পৌঁছনোর তাড়ায় কথা না বাড়িয়ে তাই মেনে নিয়ে ১২টাকা দিয়ে দেন। কোথাও কোথাও আবার ১৫টাকা পর্যন্ত নেওয়া হচ্ছে বলে যাত্রীদের অভিযোগ।

তাহলে কী দাঁড়াল?

অনেকে বলছেন, সরকার নির্ধারিত ন্যূনতম বাসভাড়া এখন প্রাচীন কালের কথা। কোনও নিয়ন্ত্রণই নেই সরকারের। এদিন ববি হাকিমকে প্রশ্ন করা হয়, যাত্রীদের কেন থানায় গিয়ে অভিযোগ করতে হবে? পরিবহণ দফতর কী করছে? জবাবে পরিবহণমন্ত্রী বলেন, “যাঁরা ভুক্তভোগী হচ্ছেন তাঁরা না জানালে আমরা জানব কী ভাবে?” তিনি এও বলেন, “দফতরও এ ব্যাপারে খোঁজ খবর নিচ্ছে। আমি কি হেলিকপ্টার নিয়ে ঘুরে বেড়াব?” তাঁকে এও প্রশ্ন করা হয়, এ বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কতগুলি বাসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে? কোনও সংখ্যা বলতে চাননি ববি।

এর আগে বাস মালিকরা একাধিকবার ভাড়া বাড়ানোর দাবি জানিয়েছিলেন। কিন্তু সরকার বলে দিয়েছিল, কোভিড পরিস্থিতির পর মানুষের বোঝা বাড়াতে পারবে না তারা। এও বলা হয়েছিল, কেন্দ্র রোজ জ্বালানির দাম বাড়াবে আর রাজ্য বাস ভাড়া বাড়িয়ে যাবে এটা কোনও সমাধান হতে পারে না। তবে গত বছর ৩ নম্ভেম্বর বাস মালিক সংগঠনগুলোর সঙ্গে বসে ববি হাকিম আশ্বাস দিয়েছিলেন অন্য ভাবে পুষিয়ে দেওয়ার। এ ব্যাপারে বিরোধীদের অভিযোগ, সরকার লোককে দেখাচ্ছে ভাড়া বাড়াচ্ছে না। অন্যদিকে বাস মালিকদের বলে দিয়েছে যেমন ইচ্ছে ভাড়া নাও। মানুষ বুঝবে সরকার খুব ভাল, যত দোষ বাস মালিকদের। এটাই আসলে অন্য ভাবে পুষিয়ে দেওয়া।     

You might also like