Latest News

ব্রাত্য মেজাজ হারালেন সাংবাদিক বৈঠকে! ‘বিদ্রুপ করছেন নাকি’ বলে উঠে দাঁড়ালেন শিক্ষামন্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: স্কুল সার্ভিসের চাকরিপ্রার্থীদের (SSC Job Seeker) একাংশের সঙ্গে শুক্রবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসে গিয়ে বৈঠক করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসু (Bratya Basu)। সোমবার তা নিয়ে ব্রাত্য নিজে থেকেই সাফাই দিতে চাইছিলেন। কিন্তু ব্রাত্যর সেই সাফাইয়ের সময়ে এক সাংবাদিক মুচকি হেসে দেওয়ায় মেজাজ হারালেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি ওই সাংবাদিককে প্রশ্ন করেছেন, “আপনি হাসছেন কেন? আপনি বিদ্রুপ করতে পারেন না!” এই বলে উঠে দাঁড়ান শিক্ষামন্ত্রী।

প্রাথমিক, মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী নিয়োগ (West Bengal Teachers Recruitment) নিয়ে যে উপর্যুপরি দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে তা থেকে মুক্তির পথ সন্ধান করা শিক্ষা দফতরের কাছে এখন বড় চ্যালেঞ্জ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি বার বার বলেছেন, ‘কাজ করতে গেলে ভুল হতেই পারে। তার পর ভুল শুধরোনোর চেষ্টা হচ্ছে কিনা সেটাও দেখতে হবে’। বস্তুত মুখ্যমন্ত্রীর এ কথার পর থেকে দেখা যাচ্ছে, শিক্ষক নিয়োগে স্বচ্ছতা কায়েম করার একটা পরিকল্পিত চেষ্টা শুরু হয়েছে। যা ইতিবাচক। সোমবার এ ব্যাপারেই শিক্ষা দফতরে বৈঠক ছিল। তার পর সাংবাদিক বৈঠক করে ব্রাত্য জানান, পুজোর আগেই ২১ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে।

শিক্ষা মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হয়, এসএসসি-র আন্দোলনকারী চাকরি প্রার্থীদের ব্যাপারেও কি বিবেচনা করা হবে? জবাবে ব্রাত্য বলেন, ‘সুপার নিউমেরিকাল পোস্ট নিয়ে আজ কোনও আলোচনা হয়নি’। তার পর ব্রাত্য স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে বলেন, কদিন আগে আমি আন্দোলনকারীদের সঙ্গে দেখা করেছিলাম। আমার রাজনৈতিক নেতা তাঁদের সঙ্গে কথা বলেছেন। আপনারা অনেক রকম বলছেন ঠিকই, কিন্তু সেদিন আমি শিক্ষামন্ত্রী হিসাবে ওখানে যাইনি। সর্বভারতীয় তৃণমূলের সহ সভাপতি হিসাবে ওই বৈঠকে গিয়েছিলাম।

ব্রাত্যর এ কথা শুনেই সামনে বসে থাকা এক সাংবাদিক মৃদু হাসেন। তাতেই চটে যান শিক্ষা মন্ত্রী। তিনি উঠে দাঁড়িয়ে বলেন, আপনি আমাকে টিজ করতে পারেন না! পরে অবশ্য ফের বসে পড়ে সাংবাদিক বৈঠক চালিয়ে যান ব্রাত্য।

এসএসসি-র আন্দোলনকারী চাকরি প্রার্থীদের বিষয় সম্পর্কে শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, আমার নেতা বিষয়টি সহানুভূতির সঙ্গে দেখছেন। কিন্তু শুধু সহানুভূতি দিয়ে তো লাভ হবে না। সহানুভূতির সঙ্গে আইন মেলাতে হবে। সেটা কীভাবে করা যায় তা দেখা হচ্ছে।

পুজোর আগেই ২১ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু, জানালেন ব্রাত্য

You might also like