Latest News

বিজেপির কেন্দ্রীয় মুরুব্বিরা দূরের গ্যালারিতে, মাঠে খেললেন রাজ্য নেতারাই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আলিপুর পুলিশ ট্রেনিং স্কুলের সামনে আইপিএস আকাশ মাঘারিয়াকে আঙুল তুলে ধমক দিচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী। সঙ্গে লকেট চট্টোপাধ্যায়। তারপর তাঁরা গ্রেফতার হলেন।

হাওড়া ময়দানে এক পুলিশ আধিকারিককে অগ্নিমিত্রা পল বলছেন, হু আর ইউ?

দিলীপ ঘোষ সরে গেলেও হাওড়া ব্রিজের মুখের জমায়েত অগ্নিশর্মা। দফায় দফায় পুলিশকে ঘোল খাওয়াচ্ছে সাঁতরাগাছির জমায়েত।

এরকম হাজার হাজার ফ্রেমের কোলাজে ধরা থাকবে মঙ্গলবারের বিজেপির (BJP) নবান্ন অভিযান (Nabanna Avijaan)। কিন্তু কোনও ফ্রেমেই দেখা গেল না বাংলা বিজেপির নবনিযুক্ত পর্যবেক্ষক সুনীল বনসল, ‘সহ প্রভারী’ অমিত মালব্য, এমনকি সদ্য বাংলার দায়িত্বে যুক্ত হওয়া বিহারের নেতা মঙ্গল পাণ্ডেকে। তাহলে কি বহিরাগত তকমা ঘোঁচাতেই এই কৌশল?

বিজেপির মহিলা কর্মীদের মারধর পুরুষ পুলিশের! অভিযোগ পেতেই সিপিকে চিঠি মহিলা কমিশনের

কোথায় ছিলেন তাঁরা?

বিজেপির এক বিধায়কের কথায়, ওঁরা বাংলাতেই ছিলেন না। অর্থাৎ মাঠে-ময়দানে যখন বাংলার নেতাকর্মীরা (state leaders) বিরোধী রাজনীতির পরিসরের সমীকরণ বদলাতে চাইছেন, পুলিশের জল কামান-কাঁদানে গ্যাসের শেলের বিরুদ্ধে রাজপথে লড়াই করছেন তখন কলকাতা থেকে অনেক দূরের গ্যালারিতে রয়েছেন সুনীল, অমিত, মঙ্গলরা। হ্যাঁ! অমিত মালব্য কেবল গুচ্ছ টুইট করেছেন। কারণ তিনি বিজেপির সাইবার গুরুও বটে!

কেন এলেন না ওঁরা?

বিজেপি সরকারিভাবে এ নিয়ে কিছু বলেনি। কয়েকজন কপিবুক নেতা বলেছেন, ওঁদের তো আসার কথা ছিল না! তবে ঘরোয়া আলোচনায় বিজেপির একাধিক বিধায়ক, সাংসদ বলছেন, ওঁদের আসতে বারণ করা হয়েছিল। বলা হয়েছিল, আপনারা পরমর্শ দিন। কিন্তু কর্মসূচিতে আসতে যাবেন না। কারণ এই মাটি সম্পর্কে আপনাদের সম্যক ধারণা নেই।

বিজেপির বাইরের রাজ্যের নেতাদের বহিরাগত বলে কার্যত পচিয়ে দিয়েছিল তৃণমূল। ভোটের ফল দেখে অনেকেই ভেবেছিলেন, এই শব্দবন্ধ বাঙালি মননে গেঁথে গিয়েছে। হতে পারে অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়েই বাইরের নেতাদের মাঠে নামাতে চায়নি মুরলীধর সেন লেন।

একুশের ভোটে বিজেপির হার নিয়ে অনেকেই বলেন, দিল্লির নেতাদের ওভার কনফিডেন্সের জন্যই ভরাডুবি হয়েছে। কারণ কেউ কেউ এসে ভেবেছিলেন, ইন্দোরে যেভাবে ভোট হয় সেভাবেই বুঝি ইলামবাজারে হবে। কিংবা গান্ধীনগরে যেভাবে ভোট হয়ে যায় সেভাবেই হয়তো গড়বেতায় হবে। তথাগত রায়ের মতো প্রবীণ নেতারা প্রকাশ্যেই বলেছেন, কৈলাস ফৈলাস চলবে না। বাইশের নবান্ন অভিযানে গেরুয়া শিবিরের বাংলা ব্রিগেড দিল্লিকে বলতে চাইল, আপনারা অতিথি শিল্পী।

You might also like