Latest News

এ দেশে কোনও পুরুষেরই অধিকার নেই তিন-চারটে করে বিয়ে করার: হিমন্ত বিশ্বশর্মা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মাঝেমধ্যেই নানা আলটপকা মন্তব্য করে বিতর্কের ঝড় তোলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা (Himanta Biswa Sarma)। দলের হয়ে কথা বলতে গিয়ে যা যা বলেন, তাতে অনেকেই অভিযোগ করেন, তিনি মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকার চেয়েও বেশি পালন করেন বিজেপি (BJP) নেতার ভূমিকা। এবার ফের তেমনই একটি বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন তিনি। বললেন, তাঁর দল মুসলিমদের একাধিক বিয়ে (Muslim multiple wives) ও বহু সন্তানের বিপক্ষে।

ঘটনার সূত্রপাত দু’দিন আগে। এআইডিইউএফ প্রধান বদরুদ্দিন আজমল মন্তব্য করেছিলেন, একজন মহিলা ২০-২৫টি সন্তানের জন্ম দিতে পারে। তাই জনসংখ্যা বাড়াতে চাইলে মুসলিমদের পন্থা মেনে কমবয়সি মেয়েদের বিয়ে করুক হিন্দুরাও। এমন নিদান দিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন বদরুদ্দিন।

একথারই পাল্টা জবাব দিতে গিয়ে হিমন্ত বলেন, ‘স্বাধীন ভারতবর্ষে কোনও পুরুষেরই অধিকার নেই তিন-চারটে করে বিয়ে করার। আমরা এই সিস্টেম বদলাতে চাই। মুসলিম মহিলাদের প্রতি এই অবিচার দূর করতে আমরা কাজ করব। আমরা চাই, সবকা সাথ সবকা বিকাশ। তাই আমরা মনে করি, অসমে যদি কোনও হিন্দু পরিবার থেকে কেউ ডাক্তার হন, তাহলে মুসলিম পরিবার থেকেও হওয়া উচিত। অনেকেই এভাবে ভাবেন না, কারণ তাঁরা মুসলিম ভোট হারানোর ভয় পান।’

এর পরেই বদরুদ্দিন আজমলের প্রসঙ্গ টেনে বিশ্বশর্মা বলেন, ‘অসমে বদরুদ্দিন আজমলের মতো নেতারা আছেন। তাঁরা বলেন, মহিলাদের যত বেশি সম্ভব জন্ম দেওয়ার কথা, যেন মহিলারা চাষের উর্বর জমি। কিন্তু সন্তানের জন্ম দেওয়ার সঙ্গে চাষ করার কোনও তুলনা হয় না। ঠিক আছে, আমাদের হিন্দু মহিলারা ২০-২৫ সন্তানের জন্ম দিয়ে দেবে। কিন্তু তাদের সবার খাওয়া, পরা, শিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে আজমলকে।’

তিনি আর বলেন, ‘আমাদের সরকারের নীতি স্পষ্ট। আমরা সকলের জন্য কাজ করি, সকলের উন্নয়ন চাই। আমরা চাই না, মুসলিম ছাত্ররা মাদ্রাসে পড়শোনা করে ‘ইমাম’ বা ‘জনাব’ হয়ে উঠুক। বিজেপি সরকার চায়, সব মুসলিম বাচ্চারা স্কুলে-কলেজে গিয়ে ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার হোক।’

জামিনের পরেই ফের গ্রেফতার সাকেত গোখলে! আজই গুজরাত যাচ্ছেন তৃণমূলের প্রতিনিধিরা

You might also like