Latest News

বাড়ি বসেই মিলবে জন্ম-মৃত্যুর শংসাপত্র, নয়া ভাবনা ফিরহাদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাড়িতে বসেই জন্ম-মৃত্যুর শংসাপত্র মিলবে এবার থেকে! শুনতে অবাক লাগলেও ভবিষ্যতে এমনই পরিষেবা চালু হতে চলেছে। কলকাতা পুরসভা এলাকায় মানুষের শংসাপত্র পেতে আর দৌঁড়াতে হবে না কোথাও। এমনই পরিকল্পনার কথা শোনালেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

টক টু মেয়র অনুষ্ঠানের শেষে শনিবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ফিরহাদ হাকিম জানান তাঁর এই ভাবনার কথা। এর আগেই পুরসভার সম্পূর্ণ কাজ কাগজ বিহীন করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিলেন তিনি। এদিন সেই কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন যে, ‘এই শংসাপত্র বিষয়টি পুরোটাই অনলাইনে করা হবে। পাশাপাশি এই শংসাপত্র হোম ডেলিভারি যাতে দেওয়া যায় তাও চিন্তা করছি।’

এদিন তিনি আরও জানান, পুর পরিষেবা উন্নত করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ৪২ কোটি টাকা দিয়েছেন। যা দিয়ে ধীরে ধীরে সব পরিষেবা ঠিক করা হবে এবং কাগজ বিহীন করে তোলা হবে।

আর সেই পদ্ধতি হলেই আসছে একটা প্রশ্ন? যাদের বাড়িতে স্মার্টফোন বা কম্পিউটার নেই তাঁরা কি বঞ্চিত থাকবেন? ফিরহাদ জানান, ‘কখনই নয়। প্রতি বরোতে বাংলা সহায়তা কেন্দ্র আছে। সেখান থেকেই এই সুবিধা পাওয়া যাবে। শুধু তাই নয় রাজ্য সরকারের যেসব সহায়তা কেন্দ্র আছে সেইসব কেন্দ্র থেকেও সেই সুবিধা মিলবে।’

প্রসঙ্গত, গতবছরই জন্ম-মৃত্যুর শংসাপত্র সমস্যা মেটাতে একটি একটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর চালু করে কলকাতা পুরনিগম। ৮৩৩৫৯৯৯১১১ এই নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপ করলে জানা যায় কবে পাওয়া যাবে শংসাপত্র। কিন্তু সেই পরিষেবা ব্যহত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

সেই নিয়ে এদিন ফিরহাদ বলেন, ‘জন্ম-মৃত্যু শংসাপত্র সার্টিফিকেট দেওয়ার কাজ কিছুদিন বন্ধ ছিল। করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন কর্মীরা। এখন কিছু ব্যাকলগ আছে কিছুদিন এই সমস্যা মিটে যাবে। কাজের গতি বাড়ানো হবে।’ এরপরই তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতে যদি বাড়িতে সার্টিফিকেট হোম ডেলিভারি দেওয়া যায় তার চিন্তাভাবনা রয়েছে।’

You might also like