Latest News

ত্রিপুরার বিপ্লব সিপিএমের জেলা সম্পাদক পদ ছাড়বেন, দৌড়ে দিলীপ ঘোষ, পরেশ পাল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সিপিএমের সম্মেলন পর্ব চলছে। এর মধ্যে যে ক’টি জেলার সম্মেলন হয়েছে তার মধ্যে দার্জিলিং, উত্তর দিনাজপুর, পূর্ব বর্ধমান, মুর্শিদাবাদের জেলাতে সম্পাদক বদল হয়েছে। ২৯-৩০ জানুয়ারি হাওড়া জেলার সম্মেলন। সেই সম্মেলন পর্ব থেকে বর্তমান জেলা সম্পাদক বিপ্লব মজুমদারের অব্যাহতি নেওয়ার কথা। কারণ তিনি কৃষকসভার রাজ্য সভাপতি। গণসংগঠনের রাজ্য সভাপতি থাকলে পার্টির জেলা সম্পাদক থাকা সম্ভব নয় বলেই সিপিএমের অনেকের দাবি। সেই প্রেক্ষিতেই এখন হাওড়া সিপিএমে গুঞ্জন, কে হবেন পরবর্তী সম্পাদক?

হাওড়া সিপিএমের অনেকের বক্তব্য, বিপ্লববাবুর ছেড়ে যাওয়া চেয়ারে বসার ব্যাপারে মূলত দুটি নাম আলোচনার মধ্যে রয়েছে। এক গ্রামীণ হাওড়ার নেতা দিলীপ ঘোষ এবং দুই কৃষকসভার নেতা পরেশ পাল। যদিও শহর হাওড়ার কেউ কেউ সুমিত্র অধিকারী ও শঙ্কর মৈত্রর নামও পরবর্তী সম্পাদক হিসেবে হাওয়ায় ভাসিয়ে দিচ্ছেন। তবে হাওড়া সিপিএমে কান পাতলে যে দুটি নাম নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা, তাঁরা হলেন দিলীপ ঘোষ এবং পরেশ পাল। দিলীপ এবং পরেশ দু’জনেই দলের রাজ্য কমিটির সদস্য।

বিপ্লব মজুমদার ত্রিপুরার ভূমিপুত্র। ষাটের দশকে মাধ্যমিক পাশ করার পর ক্লাস ইলেভেনে ভর্তি হয়েছিলেন প্রেসিডেন্সি কলেজে। তারপর এখানেই থেকে গিয়েছেন। ছাত্র আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই সিপিএমের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন কৃষকসভার বর্তমান রাজ্য সভাপতি। ছাত্র আন্দোলনের পর হাওড়াতেই তাঁর রাজনৈতিক জীবন। নরেশ দাশগুপ্ত, দীপক দাশগুপ্ত, শ্রীদীপ ভট্টাচার্যের উত্তরসূরী হিসেবে হাওড়ার জেলা সম্পাদক হন বিপ্লববাবু।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে বিপ্লবের জায়গায় কেন সবচেয়ে বেশি করে দিলীপ ঘোষ ও পরেশ পালের নাম ভাসছে?

সিপিএমের একটি সূত্রের বক্তব্য, আলিমুদ্দিন স্ট্রিট এবার একটি ফর্মুলা নিয়েছে। কী সেই ফর্মুলা? যদি কোনও জেলা সম্পাদক বদল করতে হয় তাহলে তাঁকেই নেওয়া হচ্ছে যিনি সেই জেলা থেকে রাজ্য কমিটির সদস্য রয়েছেন। দার্জিলিংয়ের শমন পাঠক, উত্তর দিনাজপুরের আনোয়ারউল হক, মুর্শিদাবাদের জামির মোল্লা, পূর্ব বর্ধমানের সৈয়দ হোসেন এবার নতুন জেলা সম্পাদক হয়েছেন। তাঁরা প্রত্যেকেই হয় সরাসরি রাজ্য কমিটির সদস্য নয় রাজ্য কমিটিতে আমন্ত্রিত। সেই ফর্মুলার ভিত্তিতেই হাওড়া সিপিএমের অনেকের দাবি, দিলীপ বা পরেশের মধ্যেই কেউ একজন জেলা সম্পাদক হবেন। তবে সিপিএমের সম্মেলনে ভোটাভুটির বন্দোবস্ত রয়েছে। হাওড়ার সম্মেলনে সেসব হলে আলিমুদ্দিনের ফর্মুলা খাটবে কি না বলা শক্ত।

You might also like