Latest News

নয়া কোচ রেনেডির চোখে ভরা স্বপ্ন, ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের তীব্র আক্রমণ বিকাশ পাঁজির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাগ যাচ্ছে না বিকাশ পাঁজির। ময়দানে ইস্টবেঙ্গলের ঘরের ছেলে নামে পরিচিত যাঁরা রয়েছেন, তাঁদের মধ্যে অন্যতম নাম বিকাশ। তিনি এখনও সকালে ক্লাব মাঠে এসে নমস্কার করে বাড়ি ফেরেন, এখনও সেই আবেগ।

লাল হলুদের প্রাক্তন তারকা বুধবার এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, দল নিয়ে কর্তাদের উদাসীনতার কথা। যখন একের পর এক ম্যাচে ব্যর্থ হচ্ছে দল। সেইসময় চুপ করে বসেছিলেন কর্তারা। শুধু তাই নয়, মজা দেখার জন্য শ্রী সিমেন্ট কর্তাদের দোষারোপ করেছেন।

বিকাশের বক্তব্য, ‘‘দলের সাফল্যে সবাই যখন এসে হাজির হয়, তা হলে ব্যর্থতায় কেন সবাই একজোট হবো না আমরা? যখন স্প্যানিশ কোচ ম্যানুয়েল দিয়াজের কোচিংয়ে দিশা খুঁজে পাচ্ছিল না দল। সেইসময় কলকাতায় বসে থেকে কী করছিলেন কর্তারা? তাঁরা সেখানে গিয়ে কোচ ও ফুটবলারদের সঙ্গে কথা বলতে পারতেন।’’

প্রাক্তন এই উইঙ্গার আরও বলেছেন, ‘‘শ্রী সিমেন্টের এক কর্তা তিনি প্রাক্তন ফুটবলারদের সঙ্গে বসে নানা মত নিয়েছিলেন, কিন্তু সেটি দলের কারোর কাছে বলেননি, তা হলে প্রাক্তনদের থেকে মত নেওয়া হয়েছিল কেন, জানতে চাই।’’ বিনিয়োগকারী সংস্থার আধিকারিক শ্রেণিক শেঠের নামেও অভিযোগ করেছেন বিকাশ।

তিনি বলেছেন, ‘‘উনি প্রাক্তনদের কয়েকজনের সঙ্গে হাত মিলিয়ে দলের বারোটা বাজিয়েছেন। তাঁর ফুটবল নিয়ে কোনও ধারণাই নেই, তিনি আবার কী মুখে ফুটবলের জ্ঞান দেন!’’

তার মধ্যেই বুধবার থেকে গোয়ার মাঠে দলের মূল কোচের দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন রেনেডি সিং। লাল হলুদের প্রাক্তন এই মিডিও ফুটবলারদের সঙ্গে মিশে গিয়ে বলেছেন, ‘‘সব ম্যাচকেই শেষ ম্যাচ ভাবতে হবে ফুটবলারদের, তা হলে জয়ের মরিয়া তাগিদ থাকবে। শেষ থেকে শুরু করার আনন্দই আলাদা, আমাদের মাঠে নেমে সেরাটা দিতে হবে, সেই বিষয়ে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হতে হবে ফুটবলারদের।’’

রেনেডির হাত ধরে প্রথম জয়ের মুখ দেখতে চায় ইস্টবেঙ্গল। এদিন প্র্যাকটিসে দলের ফুটবলারদের হাতে ধরে দোষত্রুটি বুঝিয়ে দিয়েছেন। রেনেডি বলেছেন, ‘‘নতুনভাবে শুরু করতে হবে আমাদের। ছেলেদের মনের জোর রয়েছে, সেটি আমি বুঝতে পেরেছি। একবার জয়ের দেখা পেলেই এই দলই ঘুরে দাঁড়াবে।’’

You might also like