Latest News

Bangladesh: বিষ কিনতে গিয়ে দোকানির প্রেমে পড়লেন তরুণী, সেখানেও আঘাত! অতঃপর…

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সংসারে নিত্য অশান্তি লেগেই ছিল। স্বামীর সঙ্গে এক্কেবারেই বনিবনা হয়নি। জীবনের প্রতি বিতৃষ্ণা থেকে আত্মহত্যার (Suicide) সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন গৃহবধূ (Bangladesh)।

বিষ কিনতে একটি সারের দোকানে চলে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে দোকানদারকে বিষের (Poison) কথা বললে তিনি বিপদ আঁচ করেন। গৃহবধূকে বুঝিয়ে সুঝিয়ে চরম সিদ্ধান্ত থেকে ফিরিয়ে আনেন ফের (Bangladesh)। এরপর এই দোকানদারকেই মন দিয়ে বসেন আত্মহত্যা করতে চাওয়া সেই মহিলা। প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন নতুন করে।

আরও পড়ুন: বাঁশবেড়িয়ায় অ আ ক খ শিখছেন উর্দুভাষীরা

কিন্তু সেখানেও বিপত্তি। নতুন প্রেমিক কিছুতেই বিয়েতে রাজি নয়। আগের স্বামীকে তালাক দিয়েই সারের দোকানদারের সঙ্গে প্রেম করছিলেন মহিলা (Bangladesh)। তবে প্রেমে ফের ধাক্কা খেলেন। ফের আরেকবার বিষ খাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন তিনি। প্রেমিকের বাড়ির সামনে গিয়ে এবার বিষয়টা খেয়েই ফেললেন। তবে এ যাত্রায় প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন মহিলা। বিষ খাওয়ার পর হাসপাতালে দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয় তাঁর জন্য।

ঘটনাটি বাংলাদেশের (Bangladesh)। সেখানকার পটুয়াখালির মির্জাগঞ্জের সীমা আক্তার এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন। সংসারের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে প্রথমে বিষ কিনতে গেছিলেন তিনি। বিষের দোকানদারের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার পর ফের প্রেমে ধাক্কা খান। ফের বিষ পান করে নিজেকে শেষ করতে চান।

সীমা আক্তারের প্রথম স্বামীর নাম শহিদুল্লা। তাঁর সঙ্গে সীমার রোজকার ঝামেলা লেগেই থাকত। সীমা শহিদুল্লার বছর তিনেকের এক ছেলেও রয়েছে। স্বামী সংসার সব ফেলে বিষ কিনতে দোকানে যান সীমা। পরিচয় হয় সারের দোকানের রায়হানের সঙ্গে।

সীমার অভিযোগ, রায়হান সীমাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। সেকথা বলেই নাকি একাধিকবার সহবাসও করেছে সে সীমার সঙ্গে। কিন্তু পরে জানিয়ে দিয়েছে বিয়ে সে করতে পারবে না। এতেই মন ভেঙে যায় ২২ বছরের তরুণীর। বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর রায়হান নামের ওই দোকানি, যে একসময় সীমার জীবন ফিরিয়ে দিয়েছিল, তার বাড়ির সামনে গিয়ে বিয়ের দাবি নিয়ে

ধর্নায় বসেন সীমা। তাতেও কোনও লাভ না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত চরম সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। এ যাত্রায় তিনি বেঁচে গেলেও আত্মহত্যাপ্রবণতা নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন আত্মীয়রা।

You might also like