Latest News

Bagtui Violence: পরিবারের দাবিতেই সিলমোহর, ময়নাতদন্ত বলছে মারের পর জীবন্ত পুড়িয়ে খুন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রামপুরহাটের বগটুই (Bagtui Violence) হত্যাকাণ্ডে মৃতদের পরিবারের দাবিতেই সিলমোহর দিল ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট (Postmortem Report)। রামপুরহাট মেডিকেল কলেজে হওয়া ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে বলা হয়েছে, প্রথমে মৃতদের ব্যাপক মারধর করা হয়। তারপর জীবিত অবস্থাতেই আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। সেই আগুনে পুড়ে খাক হয়ে যায় পরিবারের ৮ সদস্য!

আরও পড়ুন: বাড়ির ৮ জন পুড়ে ছাই, ভয়ে সিঁটিয়ে থাকা শেখ লালকে মমতার সামনে আনতে সাঁইথিয়া গেলেন বিডিও

মৃতদের পরিবারের জীবিত সদস্যরা প্রথম থেকেই দাবি করছিলেন, আগুনে পোড়ানোর আগে মৃতদের মারধর করা হয়। জীবিত অবস্থাতেই আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ করেন তাঁরা। প্রাথমিক ময়নাতদন্তের রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে ভীতসন্ত্রস্থ পরিবারের সদস্যরা বাড়ির দুটি ঘরে আশ্রয় নিয়েছিলেন। দু’দিকে কোলাপসিবল গেট‌ও বন্ধ করে দিয়েছিলেন। আতঙ্কে রীতিমতো কান্নাকাটি করছিল মহিলা এবং শিশুরা। চারিদিকে দরজা বন্ধ করে দেওয়া হলেও বাড়ির পিছনের একটি গলিপথে হালকা লোহার গেটছিল। সেটা ভেঙেই ভিতরে প্রবেশ করে ঘাতকরা।

এরপর পরিবারের সদস্যদের ব্যাপক মারধর করা হয়। তবে মারধরের কারণে কারো‌র প্রাণ যায়নি বলেই চিকিৎসকদের অনুমান। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট‌ও তেমন‌ই বলছে। এরপরই পেট্রোল ঢেলে বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। সেই দাউদাউ আগুনে পুড়েই শেষ হয়ে যায় ৮ জন!

আরও পড়ুন: গোটা বাংলা থেকে বোমা, অস্ত্র উদ্ধারের জন্য পুলিশকে কড়া নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট থেকে পরিষ্কার, নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে ওই ৮ জনকে।

ইতিমধ্যেই বগটুই গিয়ে হাজির হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তিনি আক্রান্ত পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও কথা বলেন। তৃণমূলের অভিযুক্ত ব্লক সভাপতি আনারুলকে গ্রেফতারের নির্দেশ‌ও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

You might also like