Latest News

কাবুল বিমানবন্দরের হট্টগোলে হারিয়ে গিয়েছিল একরত্তি, এতদিনে ঘরে ফিরল সে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অগস্ট মাসে আফগানিস্তানের কায়েম হয়েছিল তালিবানিরাজ। ১৫ অগস্ট তালিবান কাবুল দখল করে নেওয়ার পর থেকেই তুমুল হট্টগোল শুরু হয় আফগান মুলুকে। দলে দলে দেশ ছাড়তে শুরু করেন সেখানকার নাগরিকরা। তালিবানের কবল থেকে কোনওক্রমে বাঁচতে রুদ্ধশ্বাসে পালাতে চান তাঁরা। কাবুল বিমানবন্দর জুড়ে গিজগিজ করেছিল মানুষের ভিড়। আমেরিকার সেনা বিমান আঁকড়ে প্রাণে বাঁচতে চেয়েছিলেন আফগানরা। সেসময় সেদিন ওই হট্টগোলের মাঝে আপনজনের হাত থেকে ছিটকে গিয়েছিল মাস দুয়েকের একরত্তি। এতদিন পর আবার তার খোঁজ পেল বাড়ির লোকেরা।

জানা গেছে, অগস্ট মাসের উত্তাল পরিস্থিতিতে কাবুল বিমানবন্দর থেকে ওই বাচ্চাটি চলে গিয়েছিল এক মার্কিন সেনা জওয়ানের হাতে। সে সময় একরত্তির বয়স ছিল মাত্র ২ মাস। তার নাম সোহেল আহমদি। পাঁচ মাস অন্য অচেনা বাড়িতে কাটানোর পর এবার সে বাড়ি ফিরেছে।

সূত্রের খবর, ছোট্ট সোহেলকে বিমানবন্দর থেকে কুড়িয়ে পেয়েছিলেন এক ট্যাক্সি চালক। তাঁর নাম হামিদ সাফি। ছোট্ট ছেলেটিকে তিনি নিজের বাড়ি নিয়ে গিয়েছিলেন এবং নিজের মতো করেই বড় করে তুলছিলেন। টানা সাত সপ্তাহের চেষ্টার পর বাচ্চাটিকে ফের কাছে পেয়েছে তার পরিবার। কাবুলে নিজের ঠাকুরদা ও অন্যান্য আত্মীয়দের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে সোহেলকে।

সোহেলের বাবা-মা কয়েক মাস আগেই আমেরিকায় পালিয়ে গিয়েছেন। সোহেলকে তাঁরা নিয়ে যেতে পারেননি। এখন বাচ্চাটিকে কীভাবে তার বাবা-মা আর ভাই-বোনেদের কাছে পাঠানো যায় নিরাপদে সেই চেষ্টাই করা হচ্ছে।

সোহেলের বাবা জানিয়েছেন, কাবুল বিমানবন্দরে সেদিন ভিড়ে ঠাসাঠাসি অবস্থা। সেই হট্টগোলের মাঝে দু’মাসের ছেলে পিষে যেতে পারত, ভয় পেয়েছিলেন তিনি। ছেলেকে কাছেই দাঁড়ানো এক আমেরিকান উর্দিধারী সৈনিকের হাতে তুলে দিয়েছিলেন, ভেবেছিলেন কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই ভিড় পেরিয়ে ছেলের কাছে পৌঁছে যাবেন তিনি। কিন্তু তা আর হয়নি। ঠিক সেই মুহূর্তে তালিবান লোকজনকে উল্টোদিকে ঠেলতে শুরু করে। নিজের বাচ্চার থেকে দূরে সরে যান বাবা। তারপর আর তাকে কাছে পাননি।

You might also like