Latest News

ATK Mohun bagan: বাগানের অ্যাকাডেমিতে বেড়ে ওঠা ঋত্বিকের গোলেই স্বপ্নভঙ্গ এটিকে মোহনবাগানের

দ্য ওয়াল ব্যুরো

আইএসএল-র (ISL) নজির গড়া হল না এটিকে মোহনবাগান-এর (ATK Mohun bagan)। তারা টানা অপরাজেয় ছিল, এদিন দুই গোলে জিততে পারলে বাগান শীর্ষে যেতে পারত। কিন্তু সেই সুযোগ হারাল জুয়ান ফার্নান্দোর দল। বরং জামশেদপুর (Jamshedpur FC) ১-০ গোলে জিতে লিগ-শিল্ড জিতল। তারা লিগের ম্যাজিক ফিগার ৪০ পয়েন্ট টপকে ৪৩-য়ে পৌঁছে গিয়েছে।

ঋত্বিক দাসের (Ritwik Das) উত্থান বাগানের ঘরেই

জামশেদপুর এফসি-কে জয়ের মূলে বাংলারই এক উইঙ্গার, নাম ঋত্বিক দাস। আসানসোলের এই ফুটবলার একটা সময় কলকাতা ময়দানে কাস্টমস, কালীঘাট এমএস-এ খেলেছেন। ভিনরাজ্যের প্রথম দল ছিল রিয়াল কাশ্মীর, তারপর যান কেরলে। সেখানে তেমন সুযোগ করে উঠতে পারেননি। টাটার দলে যোগ দিয়েই সোনা ফলিয়েছেন ঋত্বিক। এমনকি বাংলার এই নামী তারকার উত্থান হয়েছিল অবশ্য মোহনবাগানের দুর্গাপুর অ্যাকাডেমি থেকেই। ধাত্রীগৃহে বেড়ে উঠে তাদেরই হারালেন ঋত্বিক।

Mohammedan Sporting: মহামেডানের আই লিগে জয়ের হ্যাটট্রিক, শীর্ষে পয়েন্ট তালিকার

শুরু থেকেই চড়া মেজাজে এগোতে থাকে ম্যাচ। গোলের লক্ষ্যে প্রথম থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে ঝাঁপান লিস্টন, মনবীররা। খেলার ১০ মিনিটেই মনবীরকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেন জামশেদপুরের প্রণয় হালদার।

১৩ মিনিটে সন্দেশকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেন চিমা চুকু। ১৭ মিনিটে লিস্টন কোলাসোর বাড়ানো বল থেকে জনি কাউকোর জোরালো শট পিটার হার্টলের মাথায় লেগে বাইরে যায়। তিরির একটা দুরপাল্লার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। বিরতিতে খেলার ফল ছিল গোলশূন্য।

আইএসএলের লিগ-শিল্ড জিতল জামশেদপুর এফসি দল। জয়ের পরে ফুটবলারদের উল্লাস কাপ হাতে।

৫৬ মিনিটে তিরির রক্ষণ ভেদ করে গোল করেন ঋত্বিক দাসই। এরপরও সেটপিস পজিশন থেকে গোলের সুযোগ তৈরি হয় এটিকে মোহনবাগানের। কিন্তু লক্ষ্যপূরণ হল না। দুই গোল করার চাপেই যেন নিশ্চিন্তে খেলা হল না রয় কৃষ্ণদের। শেষ লগ্নেও সহজ গোল হাতাছাড়া হয় সবুজ-মেরুনের।

স্প্যানিশ কোচ ফার্নান্দোর কোচিংয়ে এই প্রথম বার হারল এটিকে মোহনবাগান। শেষ হল এ বারের আইএসএল-এ তাদের অপরাজিত থাকার দৌড়। অন্যদিকে, টানা সাত ম্যাচ জিতে জামশেদপুর নতুন রেকর্ড গড়ল। শেষ ১১টি ম্যাচের দশটিতে জিতেছে তারা। এক মাত্র ড্র করেছে বেঙ্গালুরু এফসি-র বিপক্ষে।

আইএসএল-এর নিয়ম অনুযায়ী দু’টি দলের পয়েন্ট সমান হলে সেই দু’টি দলের মধ্যে মুখোমুখি সাক্ষাতে কী হয়েছে সেটি দেখা হয়। এর আগের লেগে জামশেদপুর ২-১ গোলে হারিয়েছিল বাগানকে। তাই রয় কৃষ্ণদের দুই গোলে জিততেই হতো, সেটি না পারায় তারা তালিকায় তিনে শেষ করল।

স্প্যানিশ কোচ আগেই জানিয়েছিলেন কুঁচকিতে চোট পাওয়ায় হুগো বুমোস খেলবেন না। সুসাইরাজেরও চোট ছিল রয় কৃষ্ণর সঙ্গে জুটি বেঁধে নামতে পারেননি ডেভিড উইলিয়ামসও।  কৃষ্ণর সঙ্গে কোলাসো ও মনবীরকে রেখেই দল সাজিয়েছিলেন কোচ। প্রথমার্ধে ফ্রি-কিক থেকে গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন কোলাসো। তবে প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে গোল হজম করা থেকে দলকে রক্ষা করেন অমরিন্দর।

 

You might also like