Latest News

Astrology: ইউক্রেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত রাশিয়ার কপালে আছে প্রাকৃতিক বিপর্যয়, বলছেন বাংলা পঞ্জিকার গণকেরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো:‌ ইউক্রেনের বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছে পুতিনের রাশিয়া। বাংলার পঞ্জিকা বিশারদরা যুদ্ধ নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি। কিন্তু আগামী এক বছর রাশিয়ার দিনকাল ভাল যাবে না। রাশিয়ায় বড় প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন জ্যোতিষরা (Astrology)।

আসন্ন বাংলা নতুন বছর নিয়ে পঞ্জিকায় শ্রীলঙ্কার অর্থনৈতিক বিপর্যয় নিয়ে বলা হয়েছে—নাশকতামূলক কার্যকলাপ বাড়বে। বাংলাদেশে ধর্মীয় সংগঠনগুলির শক্তিবৃদ্ধিতে অমুসলিম দেশগুলির সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হবে বলেও দাবি পঞ্জিকাগুলির।

পুজো-পার্বণ, বার-তিথি-নক্ষত্র দেখা ছাড়াও পঞ্জিকার একটি অন্যতম আকর্ষণ হল বার্ষিক ‘‌রাষ্ট্রফল’‌। পঞ্জিকার (bangla panjika) এই বিভাগে বিস্তারিতভাবে ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, নেপাল, চিন, রাশিয়া,জার্মানি ও আমেরিকার বিষয়ে অল্প কথায় লেখা থাকে।

রাশিয়া–ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে গোটা বিশ্ব উত্তাল। বেনীমাধব শীলের ফুল পঞ্জিকার রাষ্ট্রফল বিভাগে রাশিয়া নিয়ে লেখা হয়েছে, ‘বর্তমান বছরে দেশের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অবস্থা সামঞ্জস্য পূর্ণ রাখার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। মহামারী পরবর্তী বেকারত্ব, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি নিয়ে সরকারের ওপর চাপ থাকবে। ধর্মীয় সংগঠনের চাপ বৃদ্ধি পাবে। মুসলিম দেশগুলির চিন্তাভাবনা বিষয়ে আমেরিকা ও ইউরোপিয় দেশগুলির সঙ্গে সহযোগিতার ক্ষেত্র প্রসারিত থাকবে। ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক সুরক্ষিত রাখার প্রয়াসে দৃঢ়তা দেখা যায়। প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে প্রাণহানির আশঙ্কা থাকবে। কারিগরি, মহাকাশ, বিজ্ঞান, ক্রীড়াক্ষেত্রে নাম উজ্জ্বল থাকার সম্ভাবনা।’

এখন শ্রীলঙ্কার পরিস্থিতি খুবই খারাপ। অর্থনৈতিক ডামাডোলে প্রায় দুর্ভিক্ষ পরিস্থিতি শুরু হয়েছে। বিষয়টিতে পঞ্জিকাগুলোর মত, ‘শ্রীলঙ্কার বর্তমান বৎসরে রাজনৈতিক অবস্থা কিছুটা স্থিতিশীল হলেও অর্থনৈতিক অবস্থা ফিরবে বলে মনে হয় না। বছরের মাঝামাঝি বিভিন্ন স্থানে নাশকতামূলক কার্যকলাপ বৃদ্ধি পেতে পারে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ও খাদ্য দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে ক্ষোভের সঞ্চার ঘটবে। বৈদেশিক সহযোগিতায় দেশে শিল্পস্থাপনের প্রচেষ্টা কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরির ফলে বেকারত্ব হ্রাস পাবে। ভারতের সঙ্গে সম্পর্কে শীতলতা দেখা দেবে।’

চিন সম্পর্কে বলা হয়েছে, দেশটি মহামারী তৈরির চক্রান্তকারী হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। তাই অন্য দেশগুলির সঙ্গে চিনের বাণিজ্যিক সম্পর্ক খারাপ হলেও পাকিস্তানের সঙ্গে বন্ধুত্ব থাকবে।

নেপাল এবং বাংলাদেশে জঙ্গি কার্যকলাপ বাড়বে বলেই মত পঞ্জিকা প্রণেতাদের। অন্যদিকে, আমেরিকার বেকারত্ব নিয়ে সে দেশে ক্ষোভ বাড়বে বলেই মনে করেছেন তাঁরা। তবে আমেরিকা ভারতকে আরও সাহায্য করবে।

কীসের ভিত্তিতে আবহাওয়ার পূর্বাভাসের মতো এই গণনা লেখা হয়? বিষয়টিতে বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকার কর্ণধার সুপর্ণ লাহিড়ী বললেন, ‘রাজনৈতিক ও সমাজনৈতিক বিষয়ে পড়াশোনা করেই ওই বিভাগে লেখেন। মূলত জ্যোতিষীরাই লেখেন। অনেক দার্শনিকও পঞ্জিকার সঙ্গে যুক্ত থাকেন।

গুপ্ত প্রেসের ডায়রেক্টরি পঞ্জিকার ম্যানেজার রমেন পাল বললেন, ‘এগুলোর জন্য আমাদের মাইনে করা বিশেষজ্ঞ গণক রয়েছেন। তাঁরা পণ্ডিত লোক। তাঁরাই গণনা করে লেখেন।

পশ্চিমবঙ্গের রাশি, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, বাম, বিজেপির ভবিষ্যৎ, কী বলছে নতুন বাংলা পঞ্জিকা

You might also like