Latest News

ধর্ষকদের ভাষায় কথা বলা থামান! নির্ভয়া কাণ্ড নিয়ে গেহলতকে ধমক মহিলা কমিশনের প্রধানের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ধর্ষকদের (Rapist) মৃত্যুদণ্ড (Death Penalty) দেওয়া নিয়ে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের (Rajasthan CM) মন্তব্য নিয়ে সম্প্রতি তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়েছে। সেই বিতর্কেই এবার গেহলটকে একহাত নিলেন দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধান (Delhi Women’s commission chief) স্বাতী মালিয়াল (Swati Maliwal)। ‘ধর্ষকদের ভাষায় কথা বলা বন্ধ করা উচিত অশোক গেহলটের,’ দাবি তাঁর।

শুক্রবার একটি সভায় গেহলট বলেন, ‘নির্ভয়া কাণ্ডের পর থেকেই দোষীদের ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এতেই ধর্ষণের পর মেয়েদের মেরে ফেলার প্রবণতা বেড়েছে। কোনও প্রমাণ যাতে না থাকে, তার জন্য ধর্ষণ করার পর মেয়েদের মেরে ফেলেছে দোষীরা। আমি গোটা দেশ জুড়েই এই প্রবণতা দেখতে পাচ্ছি।’

এই ঘটনারই একটি ভিডিও টুইটারে শেয়ার করেন স্বাতী। গেহলটের মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে স্বাতী বলেন, ‘এই মন্তব্যের যত সমালোচনাই করা হোক না কেন, তা কমই হবে। আমাদের দেশে প্রতিদিন মেয়েদের নৃশংসভাবে ধর্ষিতা হতে হয়। দীর্ঘদিন অনশন আন্দোলন করার পর এই আইন আনা গিয়েছিল। রাজনৈতিক নেতাদের এই ধরনের মন্তব্য নির্যাতিতাদের মনোবল ভেঙে দেয়। নেতাদের কাজ মহিলাদের সুরক্ষা দেওয়া, অপ্রয়োজনীয় কথা বলা নয়।’

গেহলটের মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গজেন্দ্র এস শেখাওয়াতও। ‘গত তিন বছরে রাজস্থান অল্পবয়সী, নিষ্পাপ মেয়েদের জন্য নৃশংসতার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছে। নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে বিতর্কিত মন্তব্য করার চেয়ে খারাপ আর কিছু হতে পারে না,’ দাবি তাঁর।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১৬ ডিসেম্বর দিল্লিতে গণধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন ২৩ বছর বয়সি এক প্যারামেডিক্যাল ছাত্রী। তার উপর হওয়া নৃশংসতায় শিউরে উঠেছিল বিশ্ব। বেশ কিছুদিন হাসপাতালে কাটানোর পর মৃত্যু হয় নির্যাতিতার। সেই ঘটনা আলোড়ন ফেলে দিয়েছিল গোটা দেশ তো বটেই, পৃথিবীতেও। তারপরেই ধর্ষণ সংক্রান্ত আইনে বদল আনা হয়। এই ঘটনাই নির্ভয়া কাণ্ড নামে পরিচিত। বিচারে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর ২০২০ সালের ২০ মার্চ ফাঁসিতে ঝোলানো হয় এই ঘটনার ৪ জন অপরাধীকে। সেই প্রসঙ্গেই গেহলটের এই মন্তব্যে বিতর্কের ঝড় উঠেছে সারা দেশে।

এক হাঁটু কাদা পেরিয়েই চলে যাতায়াত, প্রতিশ্রুতি মিললেও রাস্তা হয়নি হাওড়ার এই গ্রামে

You might also like