Latest News

নতুন বছরে চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ পেল ভারত, কেমন হবে পোশাক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দেশের প্রথম ‘চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ’ (সিডিএস) হয়েছেন প্রাক্তন সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত। এত দিন তিন বাহিনীর উপরে ছিলেন শুধুই রাষ্ট্রপতি। এবার তিন প্রধানের উপরে ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন বিপিন রাওয়াত। স্থলসেনা বাহিনী, নৌসেনা ও বায়ুসেনার কাজের মধ্যে সমন্বয়ের দায়িত্ব এখনও তাঁরই কাঁধে। দেশের তিন বাহিনীর প্রতিনিধি স্বরূপ চিফ অব ডিফেন্স স্টাফের পোশাকেও আসছে বদল। কেমন হতে চলেছে রাওয়াতের নতুন সাজ, তার একটা আগাম ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে ভারতীয় সেনার তরফে।

প্রাক্তন সেনাপ্রধান এখন সরকারের সঙ্গে সেনাবাহিনীর সংযোগ রক্ষাকারী ‘সিঙ্গল পয়েন্ট অ্যাডভাইজর’। সরকারকে প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে সমস্ত পরামর্শ দেবেন তিনি। দেশের প্রতিরক্ষাকে আরও মজবুত করতে তিন বাহিনীর মধ্যে সমন্বয় বাড়ানো তো বটেই, তিন বাহিনীর পরামর্শদাতা হিসেবেও কাজ করবেন বিপিন রাওয়াত। তিন বাহিনীর মূল পরামর্শদাতার পোশাকেও দেখা যাবে তার ছাপ। চিফ অব ডিফেন্স স্টাফের পিক ক্যাপ, কাঁধের ব্যাজ, বেল্ট বাকল, ইউনিফর্মের বোতাম কেমন হবে তার প্রতীকী ছবি নিজেদের টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করেছে ভারতীয় সেনা।

স্থলসেনা বাহিনী, নৌসেনা বা বায়ুসেনা প্রধানের পিক ক্যাপ যেমন হয়, সিডিএসের পিক ক্যাপ হবে তার থেকে কিছুটা আলাদা। তিন বাহিনীর প্রতিনিধি সূচক ব্যাজ লাগানো থাকবে ক্যাপে। পিক ক্যাপে যে ব্যাজ লাগানো হবে, সেই ব্যাজই থাকবে বেল্ট বাকলেও। ইউনিফর্মের বোতামেও থাকবে তেমনই ব্যাজের আদল।

জলপাইরঙা পোশাকের কাঁধের কাছে মেরুন প্যাচের উপর সোনালি রঙের অশোকস্তম্ভ এবং ব্যাজ লাগানো থাকবে। র‍্যাঙ্ক বোঝানোর জন্য কাঁধে আলাদা করে কোনও তরোয়াল, লাঠি বা তারার চিহ্ন থাকবে না। সিডিএসের কাজের নিরপেক্ষতা বোঝাতে তিন বাহিনীর কোনও রেজিমেন্টের প্রতীক বা চিহ্ন থাকবে না ইউনিফর্মে।

আরও পড়ুন: আমরা রাজনীতি থেকে দূরেই থাকব, বিতর্কের পরে বললেন বিপিন রাওয়াত

তিন বাহিনীর প্রধান দফতরে সেই বাহিনীর নির্দিষ্ট পতাকা লাগানো থাকে। তবে চিফ অব ডিফেন্স স্টাফের অফিসে তিন বাহিনীর পতাকাই উড়তে দেখা যাবে কিনা সেটা এখনও স্পষ্ট নয়। সিডিএসের গাড়িতে যে পতাকা লাগানো হবে তার ছবি সামনে এনেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। তেরঙা এবং সিডিএসের ব্যাজ দু’টোই থাকবে সেই বিশেষভাবে তৈরি পতাকায়।

ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রে জানানো হয়েছে, তিন বাহিনীর মঞ্চের (ট্রাই-সার্ভিস অর্গানাইজেশন) প্রশাসনিক দায়িত্ব থাকবে চিফ অব ডিফেন্স স্টাফের উপরেই। সামরিক কম্যান্ডের দায়িত্ব থাকবে নির্দিষ্ট বাহিনী প্রধানের হাতে, তবে প্রতিরক্ষা পরিকল্পনা কমিটির সদস্য হিসেবে কাজ করবেন সিডিএস। তিন বাহিনীর পরিকাঠামো, দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি সামরিক উপকরণের ব্যবহার বাড়ানো, প্রতিরক্ষার উপকরণ কেনার ব্যাপারে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতার ব্যাপারে পরিকল্পনা করা, জরুরি অবস্থায় প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা ও সিদ্ধান্ত নেওয়ার কাজও করবেন সিডিএস। পাশাপাশি, তিন বাহিনীর মধ্যে বিশ্বাস ও একজোট হয়ে কাজ করার মানসিকতা বাড়াবেন

You might also like