Latest News

অনুব্রতর চালকলেই কি আসল গ্যাঁড়াকল, গ্যারাজে সার সার কালো এসইউভিতে অশনি সংকেত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal) একাধিক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তাঁদের বাড়িতে চাল আর মুড়ির কোনওকালে অভাব হয় না! তাঁদের সন্তান থাকে দুধে ভাতে।

নিচুপট্টিতে দেশি গরুর দুধ পাওয়া যায়। আর চাল মানে তো রাইস মিলের (Rice Mill) চাল। সেই চাল থেকে তৈরি মুড়ি সারা বছর বাড়িতে মজুত থাকে। কিন্তু সেই চাল কলেই কি দুর্নীতির গ্যাঁড়াকল? জন্মাষ্টমীর সকালে তা সন্ধান করতেই কোমর বেঁধে নেমেছে সিবিআই।

বোলপুরে অনুব্রতর বাড়ির অদূরে ভোলে বোম রাইস মিলে এদিন হানা দিয়েছে সিবিআই। কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সি সূত্রে খবর, সেই রাইস মিলের নথি ঘেঁটেই আরও অন্তত ১২টি ছোট-বড় চালকলের হদিশ (12 Rise Mill) মিলেছে। তারমধ্যে দু’একটি আবার বীরভূমের সীমানা ছাড়িয়ে পুরুলিয়াতেও রয়েছে বলে খবর।

নতুন তৃণমূল দেখতে কেমন হবে?

এদিন ভোলে বোম রাইসমিলে সিবিআই কর্তাদের প্রথমে ঢুকতেগিয়ে বাধার মুখে পড়তে হয়েছিল। চল্লিশ মিনিট পর ভিতরে ঢোকেন তাঁরা। ঢুকেই যে ব্যাপারটি নজরে আসে তা হল মহার্ঘ গাড়ির মেলা। গোটা পাঁচেক ঝাঁ চকচকে এসইউভি দাঁড় করানো রয়েছে সারি সারি। সেই তালিকায় রয়েছে ফোর্ড এনডেভার, মহিন্দ্রা অলটুরাস, মহিন্দ্রা থরের মতো গাড়ি। মোট পাঁচটি গাড়ি রয়েছে সেখানে।

সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, যে রাইসমিলগুলির হদিশ মিলেছে সেগুলির প্রায় সবকটিরই মালিকানা মেয়ে সুকন্যার নামে রয়েছে। কোনওটায় আবার ছবিমণ্ডল অর্থাৎ অনুব্রতর প্রয়াত স্ত্রীর নাম রয়েছে।

সিবিআইয়ের একটি সূত্র দাবি করছে, গরু পাচারের টাকাই গ্যাঁড়াকল করে চালকলে ঢোকানো হয়েছে। অর্থাৎ সেই টাকা দিয়েই চাল কল কেনা হয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। আর যে সার সার কালো গাড়ি, সিবিআইয়ের সন্দেহ এতে করেই টাকা পাচার হত। তবে সবটাই তদন্ত সাপেক্ষ।

২০১৩ সালে বোলপুরের ত্রিশূলাপট্টিতে ৪৫ বিঘা জমির উপর একটি বন্ধ থাকা রাইস মিল কিনে নিয়েছিলেন কেষ্ট। পাঁচ কোটি টাকা দিয়ে তা কিনেছিলেন বলে খবর ছিল। তারপর গত ৯ বছরে আস্তে আস্তে একটি থেকে ১২টি রাইস মিল হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

আগামীকাল শনিবার আদালতে পেশ করার কথা অনুব্রতকে। তার আগে সিবিআই এই সমস্ত পরিসংখ্যান, সম্পত্তির হিসেব দিয়ে আরও কিছুদিন হেফাজতে নেওয়ার আর্জি জানাতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

এ হেন সম্পদ নিয়ে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন করেছিলেন, কেষ্ট কী করেছে? আজ বোঝা যাচ্ছে, কেষ্ট কী করেছে!”

You might also like