Latest News

অনুব্রত বিস্ফোরণ মামলায় হাজিরা দেবেন বৃহস্পতিবার, এক যুগ আগে কী হয়েছিল মঙ্গলকোটে

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পূর্ব বর্ধমান: অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal) বাংলা চিনেছিল ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত ভোটের সময়ে। সেই পুলিশের গাড়িতে বোম মারার নিদান ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর বাংলা জেনেছিল, ওঁর নাম অনুব্রত মণ্ডল। কিন্তু তার তিন বছর আগেই বোমা বিস্ফোরণ (Bomb Blast Case) মামলায় নাম জড়িয়েছিল কেষ্টর। গরু পাচার মামলায় সিবিআই হেফাজতে থাকা নেতাটি বৃহস্পতিবার সেই বিস্ফোরণ মামলাতেই হাজিরা দেবেন বিধাননগরের এমপি-এমএলএ আদালতে (Court)।

কী মামলা?

২০১০ সালের ৫ মার্চ মঙ্গলকোট থানার লাখুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত মল্লিকপুর গ্রামে সন্ধেবেলা বিকট বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছিল। বোমা বিস্ফোরণে কেবুলাল শেখ নামের একজন ব্যক্তি গুরুতরভাবে আহত হন। এই ঘটনার তদন্ত শুরু করে পুলিশ। ওই বছরই অক্টোবর মাসে চার্জশিট দেয় মঙ্গলকোট থানা। তখন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য।

সেই চার্জশিটে অনুব্রত মণ্ডল সহ মোট ১৫ জনের নাম রয়েছে। কেতুগ্রামের বিধায়ক শেখ শাহনাওয়াজের নামও রয়েছে মঙ্গলকোট বিস্ফোরণ মামলার চার্জশিটে।

অনুব্রত তৃণমূলের বীরভূম জেলার সভাপতি হলেও বর্ধমানের তিনটি বিধানসভায় সাংগঠনিক কাজ তিনিই দেখেন। সেগুলি হল, মঙ্গলকোট, আউসগ্রাম এবং কেতুগ্রাম। প্রসঙ্গত, ২০০৯ সাল থেকেই এই তিন এলাকায় তাঁর যাতায়াত।

যদিও বীরভূম তৃণমূলের বক্তব্য, ঘটনার দিন মঙ্গলকোটে ছিলেনই না অনুব্রত। তিনি সেদিন লাভপুরে ছিলেন। বর্তমান শাসকদলের দাবি, বুদ্ধবাবুর পুলিশ সেই সময়ে অনুব্রতকে মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়েছিল। বৃহস্পতিবার সেই মামলায় হাজিরা দিতেই আসানসোল থেকে অনুব্রতকে সল্টলেকে আনার কথা।

আইনমন্ত্রী মলয় ঘটককে ফের দিল্লি তলব ইডির‌!‌

You might also like