Latest News

হাতে ‘কাশ্মীর মুক্তি’ প্ল্যাকার্ড, বেঙ্গালুরুতে ধৃত আর এক তরুণী

দ্য ওয়াল ব্যুরো : শুক্রবার বেঙ্গালুরুতে সভা করছিল এক হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। সেখানে প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় এক তরুণীকে। প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘কাশ্মীর মুক্তি’, ‘দলিত মুক্তি’, ‘মুসলিম মুক্তি’। তাঁর নাম আর্দ্রা নারায়ণন। তিনি দেশদ্রোহের দায়ে অভিযুক্ত অমুল্যা লিওনার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আরও কয়েকজন। পুলিশ আর্দ্রাকে গ্রেফতার করেছে। বেঙ্গালুরুর পুলিশ কমিশনার ভাস্কর রাও জানান, এস জে পার্ক থানায় তাঁকে জেরা করা হচ্ছে।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, আর্দ্রা পশ্চিম বেঙ্গালুরুর মালেশ্বরম এলাকার বাসিন্দা। তিনি এক বেসরকারি কলেজের ছাত্রী।

গত বৃহস্পতিবার বেঙ্গালুরুতে নাগরিকত্ব আইন বিরোধী সভায় অমুল্যা লিওনা স্লোগান দিয়েছিলেন ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’। তাঁর বয়স ১৯। তিনি বেঙ্গালুরুর এক কলেজে আন্ডার গ্র্যাজুয়েটের ছাত্রী। তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা করা হয়েছে। তরুণীর বাবার নাম ভোজালদ। তিনি কর্নাটকের চিকমাগালুর জেলার কোপ্পা অঞ্চলের বাসিন্দা। মেয়ের কাজে ক্রুদ্ধ হয়ে তিনি বলেছেন, “আমার মেয়ে জেলেই পচে মরুক। পুলিশ মেরে তার পা ভেঙে দিক। আমি কোনও আপত্তি করব না। তার জন্য আমাদের পরিবারের অনেক দুর্গতি হয়েছে।”

অমুল্যা ওই ভাষণ দেওয়ার পরেই বজরং দলের স্থানীয় নেতারা তাঁর বাবার সঙ্গে দেখা করতে যান। একটি ভিডিওতে দেখা যায়, তাঁরা ওই তরুণীর বাবার সঙ্গে কথা বলছেন। সেই ভিডিওটি ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। বৃহস্পতিবার রাতেই উন্মত্ত জনতা অমুল্যার বাড়িতে হামলা করে। তাঁর বাবা এ সম্পর্কে পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন। তাঁদের বাড়িতে নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ।

কর্নাটক পুলিশ ওই তরুণীর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২৪ এ ধারায় দেশদ্রোহিতার মামলা করেছে। শুক্রবার তাঁকে জেরা করা হয়। তাঁর বাবা জানিয়েছেন, মেয়ের হয়ে মামলা লড়বেন না। কারণ মেয়ে তাঁর ইচ্ছার বিরুদ্ধে কাজ করেছে।

You might also like