Latest News

অনুব্রতর গ্রেফতারিতে সমাজমাধ্যমে ফিরল শঙ্খের সেই কবিতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো:‌ এ আবার কোন কবি? শঙ্খ ঘোষ সম্পর্কে বলেছিলেন অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)। বৃহস্পতিবার সকালেই গ্রেফতার হয়েছেন বীরভূমের দোর্দন্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতা অনুব্রত ওরফে কেষ্ট মণ্ডল। আর তারপরই ফের সামাজিক মাধ্যমে ঘুরে ফিরে আসছে কবির সাড়া জাগানো ‌‘‌মুক্ত গণতন্ত্র’‌ কবিতার বিশেষ তিনটি লাইন। ‘দেখ খুলে তোর তিন নয়ন/ রাস্তা জুড়ে খড়্গ হাতে/ দাঁড়িয়ে আছে উন্নয়ন।’

পুরো কবিতাটি হল—

মুক্ত গণতন্ত্র

সবাই শুধু মিথ্যে রটায়

পথগুলি সব দেদার খোলা

যার খুশি আয় বিরুদ্ধতায়।

যথার্থ এই বীরভূমি

উত্তাল ঢেউ পেরিয়ে এসে

পেয়েছি শেষ তীরভূমি।

দেখ খুলে তোর তিন নয়ন

রাস্তা জুড়ে খড়্গ হাতে

দাঁড়িয়ে আছে উন্নয়ন।

সবাই আমায় কর তোয়াজ

ছড়িয়ে যাবে দিগ্বিদিকে

মুক্ত গণতন্ত্র আজ।

‘সেতুবন্ধন’ পত্রিকায় কবিতাটি লিখেছিলেন শঙ্খ ঘোষ। তখন রাজ্য পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে তপ্ত। অনুব্রত (Anubrata Mondal)ঘোষণা করেছিলেন, তাঁর বীরভূম জেলা পরিষদের মোট ৪২টি আসনই চাই। কারণ রাস্তায় ‘‌উন্নয়ন’‌ দাঁড়িয়ে থাকবে। বিরোধীরা যা দেখে ফিরে যাবে। আর হয়েছিলও তাই। ২০১৮ সালের মে মাসে পঞ্চায়েত ভোটের প্রচারের সময় অনুব্রত বলেছিলেন, বিরোধী প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিতে বেরোলে দেখবেন, রাস্তায় উন্নয়ন দাঁড়িয়ে রয়েছে। এর পর বীরভূমের ৪২টি জেলা পরিষদ আসনের মধ্যে ৪১টিতেই মনোনয়ন জমা দিতে পারেননি বিরোধীরা। একজন মনোনয়ন জমা দিতে পেরেছিলেন, তিনিও তা শেষমেশ প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হন। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সব আসন দখল করেছিল তৃণমূল।

ওই ‌কবিতার জন্য অনুব্রত মণ্ডলের কটাক্ষের শিকার হতে হয়েছিল শঙ্খ ঘোষকে। অনুব্রত(Anubrata Mondal) বলেছিলেন, ‘এক কবি আছেন। আমরা জনতাম রবীন্দ্রনাথ কবি, নজরুল কবি। উনি নাকি বলেছেন, রাস্তায় উন্নয়ন দাঁড়িয়ে আছে। তা উন্নয়ন কি দাঁড়িয়ে নেই? উনি কেমন শঙ্খ যে ভালো করে বাজে না। শঙ্খ তো মঙ্গল অনুষ্ঠানে বাজে। কিন্তু এ তো উল্টো।’ অনুব্রতর এহেন মন্তব্যে জেরে কবি-সাহিত্যিক মহলে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। গরুপাচার কাণ্ডে অনুব্রত মণ্ডল গ্রেফতার হওয়ার পর ফের অনেকের মুখে মুখে ফিরছে সেই কবিতা।

গরুপাচারকাণ্ডে অনুব্রতর গ্রেফতারির পরেই শুরু গুড়-বাতাসা-নকুলদানা বিলি শুরু করে বিজেপি। এসএন ব্যানার্জি রোডে ডিসি সেন্ট্রালের অফিসের সামনে হয় উৎসব পালন। পথচারীদের মধ্যে বিলি করা হয় গুড়-বাতাসা। বাজে ঢাক।

সেইসঙ্গে সামাজিক মাধ্যমে নতুন করে শঙ্খ ঘোষের কবিতা ও কবিতা নিয়ে অনুব্রতর বিতর্কিত মন্তব্য ফিরে আসছে।

তবে কবির মৃত্যুর পর অনুব্রত সংবাদমাধ্যমকে বলেছিলেন, ‘‌শঙ্খ ঘোষ বাংলার কবি ছিলেন। ওঁকে শতকোটি প্রণাম জানাই। এই মৃত্যু সব মানুষকেই ধাক্কা দেবে। আত্মার শান্তি কামনা করি।’‌

অনুব্রতর ১০ দিনের সিবিআই হেফাজত ঘোষণা করল আসানসোলের বিশেষ আদালত

You might also like