Latest News

তৃণমূল থেকে বেছে বেছে ‘আলু’ নিচ্ছেন মিঠুন, অধীরের খোঁচা, ‘এবার চপ ভাজবে বিজেপি!’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এক সময়ের বিহারের রাজনীতিতে সিঙ্গারা, আলু এ সব খুবই চর্চিত ছিল। তখন লালু প্রসাদ বিহারের মুখ্যমন্ত্রী। ইদানীং সেই জায়গা যেন নিয়েছে বাংলা। আলুর চপ, বেগুনি ইত্যাদিতে মঁ মঁ করছে বাংলার রাজনীতি।

মঙ্গলবার যেমন বিজেপি নেতা তথা অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty) সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দাবি করছেন, তৃণমূল থেকে আর পচা আলু (potatoes) তিনি নেবেন না। বেছে বেছে নেবেন। তাঁর দাবি, ২১ জন তৃণমূল (TMC) বিধায়ক সরাসরি তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। মোট ৩৮ জন জোড়াফুল বিধায়ক মানসিক ভাবে রয়েছেন তাঁদের সঙ্গে। মহাগুরুর কথায়, “এমন অনেক রয়েছেন, যাঁদের দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সবাই তো চুরি করেননি”। অর্থাৎ মিঠুন বোঝাতে চেয়েছেন, পরমহংসের মতো তাঁদের বেছে নিচ্ছে বিজেপি।

মিঠুনকে মরশুমি রাজনীতিক বলে তৃণমূল। বাংলায় শাসক দল খোঁচা মেরে বলে, মিঠুনের সঙ্গে চুক্তি রয়েছে বিজেপির। বছরে এতগুলো সাংবাদিক বৈঠক, এত গুলো ডায়লগ আর এতগুলো সভা করে দিতে হবে। এ বার ফ্রিতে বালুরঘাটের পুজো প্যান্ডেলের ফিতেও কেটে দিয়েছেন।

মিঠুনের এদিনের দাবি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে প্রদেশ কংগ্রেস (Congress) সভাপতি অধীর চৌধুরী (Adhir Chowdhury) বলেছেন, “এটা ওদের পার্টির ব্যাপার। কাকে নেবে কাকে নেবে না সেটা ওঁরা জানেন”। এখানেই না থেমে অধীরবাবু বলেন, “তবে এ টুকু বলতে পারি, তৃণমূল ও বিজেপি মুদ্রার এ পিঠ আর ও পিঠ! বাংলায় বিধায়ক কেনা বেচার রাজনীতি শুরু করেছে ওরাই। গণতন্ত্রটাকে শেষ করেছে। আগে আলু দিয়ে চপ শিল্পের কথা বলত তৃণমূল। এ বার চপ ভাজার অধিকার চাইছে বিজেপি।”

অভিষেকের ‘দুয়ারে’ থালা বাজিয়ে স্লোগান, ‘রাজপথে হবু টিচার-চমৎকার চমৎকার!’

You might also like