Latest News

অভিষেকের কাছে অভিযোগ করা গ্রামবাসীদের নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পূর্ব মেদিনীপুর: কাঁথির সভায় যাওয়ার আগে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) মারিশদার গ্রামে হঠাৎই ঢুকে পড়েছিলেন। সেইদিন তাঁকে কাছে পেয়ে নানান না পাওয়ায় কথা জানিয়েছিলেন গ্রামবাসীদের কেউ কেউ। সঙ্গে সঙ্গে অভিযোগগুলি নিয়ে তৎপর হন তৃণমূলের (TMC) সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। ঘণ্টাখানেক পর কাঁথির সভামঞ্চ থেকে তিনি মারিশদার ওই পঞ্চায়েতের প্রধান, উপপ্রধানের পাশাপাশি তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতিকেও পদ ছাড়ার নির্দেশ দেন। এরপরই অভিযোগ উঠেছিল, অভিষেককে যারা অভিযোগ জানান তাঁদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এই অভিযোগ পেয়েই তৎপর হয়েছে প্রশাসন। অভিযোগকারীদের বাড়ির সামনে বসেছে পুলিশ ক্যাম্প (Police Security)।

এদিকে মহিলা তৃণমূলের ‘চলো গ্রামে যাই’ কর্মসূচি উপলক্ষে সেই কাঁথির‌ই এক গ্রামে গেলেন মহিলা তৃণমূলের প্রধান তথা রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। রাইপুর পশ্চিমবাড় পঞ্চায়েতে গিয়ে অনেকটা অভিষেকের ঢঙেই গ্রামবাসীদের অভিযোগ শোনেন তিনি। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো তাঁকে দেখেও গ্রামবাসীদের একাংশ আবাস যোজনায় বাড়ি না পাওয়ায় কথা জানান। চন্দ্রিমা বিষয়টি দেখবেন বলে আশ্বাস দেন।

এদিকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে যারা অভিযোগ জানিয়েছিলেন পরবর্তীতে তাঁদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। সেই অভিজ্ঞতা মাথায় রেখে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যর কাছে অভিযোগকারীদের উপর আগাম নজরদারি শুরু করেছে পুলিশ। যাতে কেউ হুমকি দিতে না পারে।

এদিকে ঠিক করে দায়িত্ব পালন না করার অভিযোগে মারিশদার তিন তৃণমূল নেতার পদ যাওয়ার পর কাঁথির বাকি শাসকদলের বাকি নেতারা সতর্ক হয়ে গিয়েছেন। তাঁরা দিনরাত এক করে বকেয়া সব কাজ করছেন বলে জানা গিয়েছে।

অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্তার বাড়িতে বোমাবাজি! ফের সেই বারুইপুরে

You might also like