Latest News

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মূক ও বধির যুবতীর সঙ্গে সহবাস, মাসতুতো দাদা গ্রেফতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো, জলপাইগুড়ি: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক মূক ও বধির ( Deaf and Dumb Girl ) যুবতীর সঙ্গে সহবাসের ( living In Relation ) অভিযোগে তার মাসতুতো দাদাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতের নাম ফরিদুল মহম্মদ। জানা গেছে, এখন ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ওই তরুণী।

এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জলপাইগুড়ি ( Jalpaiguri ) সদর ব্লকের মণ্ডলঘাট গ্রামপঞ্চায়েতের বসুনিয়া পাড়ায়। লিখিত অভিযোগ দায়েরের কিছুক্ষণের মধ্যেই অভিযুক্ত ফরিদুলকে গ্রেফতার করে মহিলা থানার পুলিশ। এলাকার বাসিন্দারা জানান, তরুণীর মা ও বাবা দুজনেই মৃত। তার এক ভাই রয়েছে। সেও বিশেষভাবে সক্ষম। সম্প্রতি তরুণী শরীরে প্রসূতির লক্ষ্মণ দেখেন তাঁরা। এ ব্যাপারে তাকে জিজ্ঞাসা করতেই ওই তরুণী অভিযুক্ত যুবকের নাম কাগজে লিখে দেয়।

বিষয়টি সামনে আসতেই সুবিচার চেয়ে তরুণীকে সঙ্গে নিয়ে শুক্রবার দুপুরে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার দ্বারস্থ হয় তার প্রতিবেশী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্মীরা। সমস্ত বিষয় শোনার পর কোতোয়ালি থানার কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীরা তাদের জলপাইগুড়ি মহিলা থানায় পাঠিয়ে দেন।

রুশ অর্থনীতিবিদের সঙ্গে মুর্শিদাবাদের ছেলের বিয়ে! কান্দিতে হল সিঁদুরদান

ওই তরুণীর প্রতিবেশী রুনা লায়লা বলেন, “হলদিবাড়ি‌র বাসিন্দা ওই যুবক সম্পর্কে তরুণীর মাসতুতো দাদা। তাই সে যখন এই বাড়িতে আসত কারও কোনও সন্দেহ হয়নি। অভিযুক্তর আগে বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু স্ত্রীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে। এখন ওই যুবতীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সে সহবাস করে‌। বর্তমানে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ওই যুবতী।”

ঘটনায় জলপাইগুড়ি ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যা বন্দনা সরকার বলেন, “মূক ও বধির মেয়েটি এখন অন্তঃসত্ত্বা। তার বাবা মা কেউ নেই। তাই মেয়েটি যাতে সম্পূর্ণভাবে আইনি সহায়তা পায় তারজন্য আমরা ওর পাশে দাঁড়িয়েছি।”

অভিযোগপত্র নিয়ে তরুণী জলপাইগুড়ি মহিলা থানায় গেলে থানার পুলিশ আধিকারিকরা সঙ্গে সঙ্গে তাঁর অভিযোগ গ্রহণ করে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

You might also like