Latest News

দুর্গাপুরে অন্তঃসত্ত্বাকে পেটাল চিকিৎসক! সরকারি হাসপাতালে ধুন্ধুমার

দ্য ওয়াল ব্যুরোঃ অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে মারধরের অভিযোগ উঠল দুর্গাপুরের (Durgapur) সরকারি হাসপাতালের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুমুল অশান্তি শুরু হয়েছে হাসপাতাল চত্বরে।

শনিবার দুপুরে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে এক প্রসূতি ভর্তি হতে চাইলে তাঁকে হাসপাতালেরই এক মহিলা চিকিৎসক মারধর করেন বলে অভিযোগ। অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম বিনীতা কুমারী। তিনি দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ। অভিযোগ শুক্রবার দুপুরে কাঁকসার পানাগড় এলাকার বাসিন্দা এক গর্ভবতী মহিলা ভর্তি হন। কিন্তু তাঁর সন্তান হতে দেরি আছে জানিয়ে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেন বিনীতা কুমারী।

‘সাতচল্লিশে স্বাধীনতা নয় ভিক্ষা পেয়েছিল ভারত!’ কঙ্গনার মন্তব্যে দূরত্ব বাড়াচ্ছে বিজেপি

তবে বাড়ি ফিরতে রাজি ছিলেন না ওই প্রসূতি। তাঁর পরিবারের লোকজন হাসপাতালের সুপারের দ্বারস্থ হন। সুপার জানান, তাঁকে হাসপাতালেই রাখা হবে, তাঁর প্রসবের বিষয়ে শনিবার সকালে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

কিন্তু প্রসূতি ওয়ার্ডে ফিরে গেলে শনিবার সকালে চিকিৎসক তাঁকে মারধর করেন বলে অভিযোগ। কেন সুপারের কাছে গিয়ে তারা নালিশ করেছে সেই ক্ষোভেই জোর করে বন্ডে সই করিয়ে নিয়ে প্রসব করানোর চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ। প্রসূতি জানিয়েছে, তাঁর গালে থাপ্পড় মারা হয়েছে। মারধরও করেছেন ওই চিকিৎসক। ভয়ে কাঁদতে কাঁদতে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে এসে সুপারের ঘরের সামনে অবস্থান করেন প্রসূতি ও তাঁর বাড়ির লোকজন। তাঁরা ওই চিকিৎসকের শাস্তির দাবি করেছেন।

হাসপাতালের সুপার ঘটনার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন এবং যথাযথ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন। তবে বিনীতা কুমারী সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বলে খবর। গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়েছে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like