Latest News

মানা যায় না! প্রধানমন্ত্রীর কনভয়ের নিরাপত্তা ভঙ্গে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ কংগ্রেস নেতারই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বুধবার পাঞ্জাবে (punjab) ফ্লাইওভারে  খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (pm modi) কনভয় (convoy) আটকে যেভাবে বিক্ষোভ (protest) দেখিয়ে তাঁকে সফর বাতিল করে ফিরে যেতে বাধ্য় করা হয়েছে, তা নিয়ে কংগ্রেস, বিজেপি বাকবিতণ্ডার মধ্য়েই নিজের দলের মুখ্যমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ করলেন পাঞ্জাব কংগ্রেস নেতা (congress leader) সুনীল জাখর (sunil jakhar)। প্রায় ২০ মিনিট কনভয় আটকে থাকে। তীব্র উত্তেজনা, উদ্বেগ (tension) ছড়ায়। ক্ষুব্ধ প্রধানমন্ত্রী সভা না করে ফিরে যাওয়ার সময় রাজ্য প্রশাসনের কর্তাদের শ্লেষের সুরে বলে যান, আপনাদের মুখ্যমন্ত্রীকে বলে দেবেন, প্রাণ হাতে করে ফিরছি, এই অনেক!

সুনীল জাখর মনে করছেন, যা হয়েছে, তা পঞ্জাবিয়াত (panjabiyat) অর্থাত্ পাঞ্জাবের সংস্কৃতির পরিপন্থী। তিনি স্পষ্ট ট্যুইটে লিখেছেন, যা হল, তা স্রেফ মেনে নেওয়া যায় না। এটা পঞ্জাবিয়াতের পরিপন্থী। ফিরোজপুরে বিজেপির রাজনৈতিক  কর্মসূচিতে দেশের প্রধানমন্ত্রী নিরাপদে সামিল হবেন, এটা সুনিশ্চিত করা উচিত ছিল। গণতন্ত্র (decocracy)এভাবেই চলে।

ভোটমুখী পাঞ্জাবে শেষ পর্যন্ত দলীয় কর্মসূচিতে ভাষণ  দিতে না পেরে ভাতিন্ডা বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী ফিরে যেতে বাধ্য হন বলে অভিযোগ করে পাঞ্জাবের কংগ্রেস সরকারকে  দুষেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। বলেছে, নিরাপত্তা বলয় ভেঙেছে বলে প্রধানমন্ত্রী বাধ্য হন ফিরে আসতে।  সাম্প্রতিক সময়ে কোনও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় সবচেয়ে  বড় গলদ হল আজ। পঞ্জাব পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছিল বলেও অভিযোগ করা  হয়েছে সরকারি সূত্রে। কেননা প্রধানমন্ত্রীর রুটের কথা শুধু পুলিশই জানত। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির দাবি, কংগ্রেস প্রধানমন্ত্রীর ক্ষতি করতে চেয়েছিল।

এদিনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে কংগ্রেসকে একহাত নিয়েছে বিজেপি। দলীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা একগুচ্ছ ট্যুইটে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরনজিত সিং চান্নিকে নিশানা করে তিনি ফোন পর্যন্ত তুলতে অস্বীকার করেন বলে অভিযোগ করেন। পাল্টা কংগ্রেস নেতা রণদীপ সিং সুরজেওয়ালার তোপ, বিজেপি সভাপতি মাথা গরম করে হিতাহিত জ্ঞান যেন হারিয়ে না ফেলেন। প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার ভারপ্রাপ্ত স্পেশাল প্রটেকশন গ্রুপ (এসপিজি) কী করছিল, প্রশ্ন তোলেন তিনি।

 

 

You might also like