Latest News

২০ ফুটের পাইথন ঘুরছিল নদীর পাড়ে, খাচ্ছিল আস্ত ছাগল! জলপাইগুড়িতে হুলস্থূল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ৫-১০ নয়, একেবারে কুড়ি ফুট এক পাইথন নিয়ে হিমশিম খেতে হল পরিবেশ কর্মীদের। বহু বছর পর গরুমারা জাতীয় উদ্যান সংলগ্ন এলাকা থেকে উদ্ধার হল এত বড় একটি অজগর। যা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায় (Jalpaiguri)।

জানা গেছে, শনিবার জলপাইগুড়ি জেলার মৌলানি বাজার সংলগ্ন নেওরা নদীর পাড়ে এই বিশালাকৃতির অজগরের (Python) দেখা পান স্থানীয়রা। একটি ছাগল মেরে খাচ্ছিল সে। যা দেখে ভয়ে শিউরে উঠেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

তড়িঘড়ি ময়নাগুড়ির পরিবেশ প্রেমী সংগঠনের সম্পাদক নন্দু রায়কে খবর দেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে যখন তিনি আসেন তখনও সেখানেই ছিল ওই অজগরটি। ২০ ফুট লম্বা অজগরটিকে বাগে আনতে হিমশিম খেতে হয় পরিবেশ কর্মীদের। প্রায় দু’ঘণ্টার চেষ্টায় বাগে আসে অজগর সাপটি।

অক্ষত অবস্থায় ওই সাপটিকে বন দফতরের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এদিন এই অজগরটিকে এবং তাকে বাগে আনার দৃশ্য দেখতে ভিড় জমে ওই এলাকায়। তার মধ্যেই খুব কায়দা করে বশে আনেন পরিবেশ কর্মীরা। স্থানীয় সূত্রে খবর, এই বিশালাকার বার্মিজ পাইথনটি লম্বায় প্রায় ২০ ফুট এবং ওজনে আনুমানিক ৫০ কিলো মত ছিল।

Jalpaiguri

জানা গেছে, সর্প বিশারদ মিন্টু চৌধুরী ২০০২ সালে একটি তথ্যচিত্র বানানোর সময় এই জঙ্গলে ২৬ ফুটের একটি অজগর চোখে পড়েছিল। পরে তাকে উদ্ধার করে বন দফতরের হাতে দেওয়া হয়। তারপর থেকে এত বড় সাপের দেখা মেলেনি এখানে।

নন্দু রায় বলেন, “দীর্ঘ জীবনে প্রচুর অজগর সাপ উদ্ধার করেছি। কিন্তু প্রায় ২০ ফুট লম্বা এই সাপ আমি জীবনে প্রথম ধরলাম।” এদিন সাপ উদ্ধারের সময় নন্দুবাবুদের সঙ্গে ছিলেন লাটাগুড়ির রেঞ্জার শুভ্রশঙ্খ দত্ত সহ অন্যান্য বনকর্মীরা। উদ্ধারের পর সাপটি সুস্থ থাকায় তাকে ফের জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

টোটো চালকদের মারপিটে আমতায় ধুন্ধুমার, মৃত্যু একজনের

You might also like