Latest News

জিকা ভাইরাস ছড়াচ্ছে পুণেতে, প্রৌঢ়ের শরীরে পাওয়া গেল জীবাণু

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ডেঙ্গির মধ্যেই জিকা ভাইরাসের (Zika virus) সংক্রমণ ছড়াচ্ছে পুণেতে (Pune)। দিনকয়েক আগে বেলাসোর গ্রামে এক মহিলার শরীরে জীবাণু পাওয়া গিয়েছিল। এবার ৬৭ বছরের এক প্রৌঢ়ের শরীরে ভাইরাল স্ট্রেন পাওয়া গেছে। ধুম জ্বর, কাশি, সারা শরীরে যন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। পরীক্ষা করে জিকা ভাইরাস পাওয়া যায়।

পুণের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে ওই ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে জিকা ভাইরাস পজিটিভ (Zika virus) রিপোর্ট আসে। ভাইরোলজিস্ট ডা. প্রদীপ আওয়াতে বলেছেন, সেরাম স্যাম্পেল নিয়ে পরীক্ষা করা হয়। জিকা ভাইরাসের স্ট্রেনই পাওয়া গেছে।

জুলাইয়ের শুরুতেই পুরন্দর তহসিলের বেলসার গ্রামে বেশ কয়েক জন জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি সামনে আসে। তাঁদের মধ্যে ৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পুণের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজি (এনআইভি)-তে পাঠানো হয়। দেখা গিয়েছে, ৩ জনের নমুনায় চিকুনগুনিয়া ধরা পড়েছে। তার পরই এনআইভি-র একটি দল বেলসার এবং পার্শ্ববর্তী পরিঞ্চে গ্রামে যায়। ৪১ জনের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে ওই দল। পরীক্ষা করার পর দেখা যায় ২৫ জন চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত, ৩ জন ডেঙ্গুতে এবং ১ জন জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত।

তবে জিকা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে সাধারণ মানুষকে উদ্বিগ্ন না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে পুণে জেলা প্রশাসন। এই ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সে দিকে নজর রাখছে প্রশাসন।

জিকা ভাইরাস মশার কামড় থেকে ছড়ায়। এডিস মশা কামড়ালে তার লালা থেকে এই ভাইরাস মানুষের শরীরে ঢুকে পড়ে। যে এডিস মশার কারণে ডেঙ্গি, চিকুনগুনিয়া প্রভৃতি রোগ ছড়ায়, সেই এডিস মশাই জিকা ভাইরাস বয়ে বেড়ায়। ভাইরাস (Zika Virus) মশার কামড় থেকে শরীরে ঢুকে রোগ ছড়ায়। এই ভাইরাসের সবচেয়ে মারাত্মক দিক হল এটি স্নায়ুতন্ত্র বা নার্ভাস সিস্টেমকে বড়সড় আঘাত করে। অন্তঃসত্ত্বা ও ছোট বাচ্চাদের এই ভাইরাস সংক্রমণে জটিল অসুখ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কী কী উপসর্গ দেখা দিতে পারে?

জিকা ভাইরাসের (Zika Virus) প্রথম লক্ষণই হচ্ছে জ্বর, অনেকটাই ডেঙ্গির মতো। আশঙ্কার বিষয় এটাই যে, অনেক রোগীই সাধারণ জ্বরের সঙ্গে জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত জ্বরকে আলাদা করতে পারেন না। তবে, চিকিৎসকদের মতে, যদি কোনও রোগীর একটানা এক সপ্তাহ জ্বর, নাক থেকে জল পড়া, মাথা ব্যথার মতো সমস্যা দেখা দেয়, তাহলে সঙ্গে সঙ্গে পরীক্ষা করানো দরকার। শুধু তাই নয়, অনেক রোগীর আবার জ্বর, মাথা ব্যথা, নাক থেকে জল পড়ার পাশাপাশি কনজাংটিভাইটিস, গাঁটে ব্যথাও দেখা দিতে পারে।

You might also like