Latest News

অল্পের জন্য রক্ষা বালুরঘাটের বিজেপি প্রার্থীর, গাড়ি চালককে মারধর

দ্য ওয়াল ব্যুরো, উত্তর দিনাজপুর : শুক্রবার রাতে ইটাহারে গিয়ে আক্রান্ত হলেন বালুরঘাটের বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদার। এই ঘটনায় তুঙ্গে উঠেছে তৃণমূল ও বিজেপির কাজিয়া। অভিযোগ, দলের এক নেতার বাড়িতে বৈঠক করতে যাওয়ার সময় স্থানীয় কিছু দুষ্কৃতী তাঁদের উপর চড়াও হয়। উপস্থিত বিজেপির কর্মী সমর্থকরা কোনও মতে ঘিরে ধরে সুকান্তবাবুকে ওই নেতার বাড়িতে ঢুকিয়ে দিলেও আক্রান্ত হন তাঁর গাড়ির চালক। বেধরক মারধর করা হয় ওই যুবককে। রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে। পরে পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ধনঞ্জয় রাজবংশী নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে।

বালুরঘাটের বিজেপি প্রার্থী সুকান্তবাবুর অভিযোগ, এ দিন রাত ১১টা নাগাদ দলের কাজে ইটাহারে এসেছেন তিনি। স্থানীয় নেতা জ্যোতিষ সরকারের বাড়িতে তাঁদের বৈঠক ছিল। সেখানে নামতেই স্থানীয় কয়েকজন যুবক তাঁদের গাড়ি ঘিরে ফেলে। মদ্যপ ওই যুবকরা রীতিমতো গালিগালাজ করছিল তাঁদের। কেন বালুরঘাট থেকে একজন বিজেপি প্রার্থী ইটাহারে আসবেন তা নিয়েও প্রশ্ন তুলছিল বারবার। তিনি বলেন, “এই পরিস্থিতিতেই আমার দলের লোকজন আমাকে ওখান থেকে সরিয়ে দেন। কিন্তু আমার গাড়ির চালক রিঙ্কুকে ধরে ফেলে ওরা। প্রচণ্ড মারধর করে। ওরা সবাই তৃণমূলের কর্মী সমর্থক। আমি ইটাহারে আসবো জেনে পরিকল্পনামাফিক হামলা করেছে।”

জেলা তৃণমুল সভাপতি অমল আচার্য্য ঘটনাটিকে দুর্ভাগ্যজনক বললেও দাবি করেন, “বিজেপি প্রার্থী ও তাঁর গাড়ির চালক গভীর রাতে মদ্যপ অবস্থায় ওই এলাকায় গিয়ে তাঁদের সমর্থকদের লক্ষ করে খারাপ ভাষা প্রয়োগ করে। তখনই এলাকাবাসী প্রতিরোধ করে। এর জেরেই বচসা ও পরে হাতাহাতি হয়।”

ধৃত ধনঞ্জয় অবশ্য জানায়, রাতে সে মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফিরছিল। অচেনা গাড়ি দেখে আরোহীদের সম্পর্কে খোঁজখবর করছিল। সেই থেকেই বচসা ও হাতাহাতি হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, গভীর রাতে ওই এলাকায় একটি গণ্ডগোল হয়েছে বলে জানতে পারেন তারা। ঘটনাস্থলে পৌঁছে ধনঞ্জয় নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। বাকিরা পালিয়ে যায়। আজ ইটাহার থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন বিজেপির প্রার্থী সুকান্ত মজুমদার।

You might also like