Latest News

আতঙ্কিত উপত্যকা, কাশ্মীরে পণ্ডিত সম্প্রদায়ের ৫৬ জনের নাম প্রকাশ করে হত্যার হুমকি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বরফ পড়া শুরু না হলেও কাশ্মীরে (Kashmir) এখন কনকনে ঠাণ্ডা, যা সেখানকার মানুষ সহজেই সইতে পারে। কিন্তু পণ্ডিত সম্প্রদায়ের (Pandit community) মানুষের হাড় হিম হয়ে যাচ্ছে একটি অললাইন ম্যাগাজিনে তাঁদের কয়েকজনের নামের তালিকা প্রকাশের পর। তাতে পণ্ডিত সম্প্রদায়ের ৫৬ জনের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। জঙ্গিদের তরফে বলা হয়েছে এই লোকগুলি তাদের পরবর্তী টার্গেট।

প্রসঙ্গত, নতুন করে জঙ্গিরা টার্গেট করায় বিগত কয়েক মাসে কাশ্মীর ছাড়তে শুরু করেছে পণ্ডিত সম্প্রদায়ের মানুষ। বেশ কয়েকটি টার্গেট কিলিংয়ের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে উপত্যকায়। যে ৫৬ জনের নাম-ঠিকানা প্রকাশের পর গোটা উপত্যকাকে নতুন করে আতঙ্ক গ্রাস করেছে, তাঁরা সকলে সরকারি কর্মচারী।

কাশ্মীর থেকে তিন দশক আগে বিতাড়িত পণ্ডিত সম্প্রদায়ের লোকজনকে ২০১০-এ তৎকালীন ইউপিএ সরকার পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করে। তাদের সরকারি চাকরিতে নিয়োগ করা হয় বিশেষ কোটা চালু করে। পণ্ডিত সমাজের সেই অংশকেই গত কয়েক মাস যাবৎ নিশানা করেছে জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি।
অল মাইগ্রেন্ট ডিসপ্লেসড এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন অফ কাশ্মীর (এএমডিইএকে)-এর সভাপতি রুবন সাপ্রু সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন যে জঙ্গিদের হুমকির জেরে পণ্ডিত সমাজের কর্মচারীদের মনে ভয় গ্রাস করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই অনলাইল সাইটটি লস্কর-ই-তৈবা গোষ্ঠীর জঙ্গিরা চালায়। অনলাইন হুমকিতে তারা ৫৬ জন কাশ্মীরি পণ্ডিত কর্মচারীর নাম, কর্মস্থলের নাম সহ একটি তালিকা প্রকাশ করেছে।

সাপ্রুর দাবি, সরকারের তদন্ত করা উচিত যে কীভাবে জঙ্গিরা উপত্যকায় কর্মরত পণ্ডিত সম্প্রদায়ভুক্ত কর্মচারীদের তথ্য পেয়েছে। সূত্রের খবর, সাম্প্রতিক অতীতে পণ্ডিত সম্প্রদায়ের তিনজনকে প্রকাশ্য দিবালোকে খুন করেছে জঙ্গিরা। তাঁদের একজনকে বলতে গেলে বাড়ির গেটে খুন করা হয়।

ঝালদা পুরসভা: রাজ্যের নির্দেশিকায় স্থগিতাদেশ হাইকোর্টের, আপাতত দায়িত্বে জেলাশাসক

You might also like