Latest News

কেরলে বন্যায়, ধস নেমে মৃত ৫, নিখোঁজ বহু

দ্য ওয়াল ব্যুরো : নিম্নচাপের প্রভাবে শনিবার থেকে ব্যাপক বৃষ্টি শুরু হয়েছে কেরলে (Kerala)। এর ফলে ধস নেমেছে ইদুক্কি ও কোট্টায়াম জেলায়। বৃষ্টি ও ধসে মারা গিয়েছেন কমপক্ষে পাঁচজন। কোট্টায়াম জেলায় নিখোঁজ হয়েছেন ১২ জন। রাজ্য সরকারের অনুরোধে ত্রাণে নেমেছে পদাতিক সেনা, নৌসেনা ও বিমান বাহিনী। সাউদার্ন এয়ার কম্যান্ডে জরুরি ভিত্তিতে তৈরি রাখা হয়েছে এমআই ১৭ ও সারঙ্গ হেলিকপ্টারগুলি। পানগোড়া সেনা ঘাঁটি থেকে কোট্টায়াম জেলার কানজিরাপ্পাল্লিন অঞ্চলে বন্যাদুর্গত এলাকায় গিয়েছে সেনাবাহিনীর একটি কলাম।

মুখ্যমন্ত্রীর অফিস থেকে কেরলের মানুষের কাছে আহ্বান জানানো হয়েছে, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বেরোবেন না। পাহাড়ে বা নদীর কাছাকাছি যাবেন না।

ইতিমধ্যে রাজ্যের পাঁচটি জেলায় জারি হয়েছে লাল সতর্কতা। সাতটি জেলায় জারি হয়েছে কমলা সতর্কতা। কোট্টায়াম জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

কোট্টায়াম জেলায় তোলা এক ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, রাস্তায় জল জমে রয়েছে। তার মধ্যে কয়েকজন মিলে একটি গাড়ি ঠেলছেন। অপর একটি ক্লিপে দেখা যায়, প্রচণ্ড বৃষ্টির মধ্যে রাস্তার ধারের গর্তে পড়ে গিয়েছে একটি গাড়ি। কয়েকজন দড়ি বেঁধে গাড়িটি তোলার চেষ্টা করছেন।

দক্ষিণের ওই রাজ্যে যে জেলাগুলিতে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে, তার মধ্যে কোট্টায়াম বাদে আছে পথনমথিট্টা, এর্নাকুলম, ইদুক্কি এবং ত্রিচুর। যে জেলাগুলিতে অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে, তাদের মধ্যে আছে তিরুবনন্তপুরম, কোল্লাম, আলাপ্পুঝা, পালাক্কাড়, মালাপ্পুরম, কোঝিকোড় এবং ওয়ানাড়। এছাড়া দু’টি জেলায় হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

আরব সাগরের দক্ষিণ-পূর্বে কেরল উপকূল জুড়ে রয়েছে একটি নিম্নচাপ। তার প্রভাবেই ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত কেরলে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। সোমবারও বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। মঙ্গলবার বৃষ্টির পরিমাণ কমে আসবে। মৎস্যজীবীদের সতর্ক করে আবহাওয়া অফিস বলেছে, কেরল উপকূলে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে।

একইসঙ্গে হাওয়া অফিস জানিয়েছে, এই মুহূর্তে বঙ্গোপসাগর ও আরব সাগরে দু’টি নিম্নচাপ রয়েছে। পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর থেকে একটি নিম্নচাপ ক্রমশ দক্ষিণ ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে পৌঁছবে। যাঁরা সমুদ্রে রয়েছেন দ্রুত তাঁদের উপকূলে ফিরে আসতে বলা হয়েছে। রবিবার থেকেই নিম্নচাপের জেরে উত্তাল হবে সমুদ্র। রবিবার আর সোমবার যাতে কেউ সমুদ্রে না যায়, সেদিকে কড়া নজর রাখবে প্রশাসন। নিম্নচাপের প্রভাবে গাঙ্গেয় দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই বৃষ্টি চলবে মঙ্গলবার পর্যন্ত।

You might also like