Latest News

বেঙ্গালুরুতে ওমিক্রন আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা পাঁচজন কোভিড পজিটিভ, পাঠানো হল আইসোলেশনে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বৃহস্পতিবার বিকালে কেন্দ্রীয় সরকার জানায়, কর্নাটকে (Karnataka) দু’জন ওমিক্রন আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। তার কিছুক্ষণ পরে কর্নাটক সরকার জানিয়েছে, আক্রান্তদের একজন পেশায় ডাক্তার। তাঁর রোগীদের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। আপাতত ওই চিকিৎসকের সংস্পর্শে আসা পাঁচজন কোভিড পজিটিভ হয়েছেন। তাঁদের দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে জিনোম সিকোয়েন্সিং-এর জন্য।

আক্রান্ত চিকিৎসকের বয়স ৪৬। তিনি সাম্প্রতিক কালে বেঙ্গালুরুর বাইরে যাননি। গত ২১ নভেম্বর তিনি জ্বরে আক্রান্ত হন। সেই সঙ্গে সারা দেহে বেদনা হতে থাকে। পরদিন কোভিড টেস্টে তিনি পজিটিভ হন। তাঁর দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে জিনোম সিকোয়েন্সিং-এর জন্য পাঠানো হয়। পরে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

অপর ওমিক্রন আক্রান্তের বয়স ৬৬। ২০ নভেম্বর ওই ব্যক্তি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে এসেছিলেন। বেঙ্গালুরুর আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে তাঁর কোভিড টেস্ট হয়। তার রিপোর্ট ছিল নেগেটিভ। তিনি আগেই ভ্যাকসিনের দু’টি ডোজ নিয়েছিলেন।

বেঙ্গালুরুতে এসে তিনি এক হোটেল উঠেছিলেন। পরে দ্বিতীয়বার তাঁর কোভিড টেস্ট হয়। তিনি কোভিড পজিটিভ হন। সরকারি ডাক্তার হোটেলে গিয়ে তাঁকে পরীক্ষা করেন। দেখা যায়, তিনি উপসর্গহীন রোগী। তাঁকে আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়। তিনি যেহেতু দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসছেন, তাই তাঁর দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে জিনোম সিকোয়েন্সিং-এর জন্য পাঠানো হয়।

ইতিমধ্যে তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন ২৪ জন। তাঁদের সকলেরই করোনা টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। ২৩ নভেম্বর ওই ব্যক্তি বেঙ্গালুরুর এক বেসরকারি ল্যাবে কোভিড টেস্ট করান। সেখানে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। ২৭ নভেম্বর তিনি হোটেল ছেড়ে ট্যাক্সিতে ওঠেন। বিমান বন্দরে গিয়ে দুবাইগামী বিমান ধরেন।

এদিন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের যুগ্ম সচিব লব আগরওয়াল বলেন, করোনার অন্যান্য ভ্যারিয়ান্টের তুলনায় ওমিক্রন সম্ভবত পাঁচগুণ বেশি সংক্রামক। হু-র মুখপাত্র মারিয়া ভন কেরখোভে বলেন, ওমিক্রন কতদূর ছোঁয়াচে, জানা যাবে কয়েকদিনের মধ্যেই। তাঁর মতে, আমাদের সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকা উচিত। হু-র মতে, ভ্যাকসিনের দু’টি ডোজ নেওয়ার পরে যদি বুস্টার ডোজ নেওয়া হয়, তাহলে শরীরে ওমিক্রনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে উঠতে পারে।

দক্ষিণ আফ্রিকায় কয়েক সপ্তাহ আগে প্রথমবার ওমিক্রন ভ্যারিয়ান্টের সন্ধান পাওয়া যায়। বৃহস্পতিবার জানা যায়, গত মঙ্গল ও বুধবারের মধ্যে সেদেশে আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে দ্বিগুণ। দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্তমানে যতজন কোভিড রোগী রয়েছেন, তাঁদের বেশিরভাগই ওমিক্রন ভ্যারিয়ান্টে আক্রান্ত। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ব্রিটেনে ২২ জন ওমিক্রন আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। গত কয়েকদিনে যে দেশগুলিতে ওমিক্রন আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে, তাদের মধ্যে আছে ঘানা, নাইজেরিয়া, নরওয়ে, সৌদি আরব এবং দক্ষিণ কোরিয়া।

You might also like