Latest News

২৯ ফুটের রুপোর দুর্গা ক্যানিংয়ে, মহালয়ায় উদ্বোধনে মমতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: ক্যানিংয়ের (Canning) ২৯ ফুটের রুপোর (silver) দুর্গা প্রতিমা (Durga) এবার আলাদা করে নজর কাড়বে দর্শনার্থীদের। মিঠাখালি সর্বজনীনের পুজো এবার পা দিচ্ছে ৩৯তম বছরে। বৃন্দাবনের চন্দ্রোদয় মন্দিরের আদলে তৈরি হয়েছে সেখানকার মণ্ডপ। নীল-সাদা রঙের সেই মণ্ডপে বসবে সম্পূর্ণ রুপোর তৈরি সেই প্রতিমা।

পুজো উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন, প্রায় চার মাস আগে প্রতিমার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছিল। চন্দ্রোদয় মন্দিরের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে মণ্ডপের দেবীরূপ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুরের এগরার শিল্পী সজল রায় এই প্রতিমা তৈরি করেছেন। তবে দেবীমূর্তিটিই শুধু রুপোর নয়, সেটি সাজানোও হবে রুপোর গয়না দিয়ে।

জানা গেছে, আগামী রবিবার ভার্চুয়াল মাধ্যমে প্রতিমার উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপরেই মায়ের রূপ প্রকাশ্যে আনা হবে। আপাতত দিন-রাত এক করে এখন মণ্ডপ সজ্জার কাজ চলছে। পুজো কমিটির সম্পাদক তথা ক্যানিং পশ্চিমের তৃণমূল বিধায়ক পরেশরাম দাস জানিয়েছেন, ‘ধরণিতে শান্তি ফেরাতে দেবীর আগমণ হচ্ছে। মিঠাখালির চন্দ্রোদয় মন্দিরে দেবীর প্রাণ প্রতিষ্ঠার মধ্যে দিয়ে সমগ্র বিশ্বে শান্তি ফিরে আসবে।’

এবছর সেখানকার পুজোয় প্রতিমাকে ১০৮টি পদ্ম দেওয়ার রীতিতেও বদল আনা হচ্ছে। কেমন হবে সেই নিয়ম? পুজো কমিটির সভাপতি উত্তম দাস বলেন, ‘আমরা চাই মায়ের পায়ের ১০৮টি পদ্মের বদলে ১০৮জন দুঃস্থ অনাথ শিশুকে নতুন বস্ত্র দিতে। শুধু তাই নয়, তাদের ভোজন করিয়ে প্রতিমা দর্শন করিয়ে মুখে হাসি ফুটিয়ে তোলাই হবে প্রধান উদ্দেশ্য। সেই হাসিই দেবীর পদযুগলের পদ্মের প্রতীক হয়ে থাকবে।’

কচুর শাকে দেবীর ভোগ আউশগ্রামের বন্দ্যোপাধ্যায় বাড়িতে

You might also like