Latest News

স্কুল-চত্বরে ঢুকে গুলি চালাল দুষ্কৃতীরা! আহত দুই শিক্ষক!

দ্য ওয়াল ব্যুরো, কোচবিহার:  স্কুল শুরুর সময়ে দুষ্কৃতী হামলা স্কুল চত্বরে। গুলিবিদ্ধ হলেন গীতালদহের হরিরহাট প্রাথমিক স্কুলের দুই শিক্ষক। আহত আরও একজন। বুধবার সকালে স্কুল খোলার কিছুক্ষণের মধ্যেই মোটরবাইকে করে এসে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা।  জখম হন গীতালদহ তৃণমূলের নেতা মোফাজ্জল হোসেনের দাদা প্রাথমিক শিক্ষক মজনু হোসেন।  আহত অন্য দু’জনের নাম মনোয়ারা হোসেন ও মোফাজ্জল হোসেন। এঁদের মধ্যে দু’জনকে কোচবিহারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আরেকজন ভর্তি রয়েছেন দিনহাটা হাসপাতালে। প্রত্যেকেই এলাকার পরিচিত তৃণমূল কর্মী। এই ঘটনায় আবার সামনে এল শাসক দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব।

দীর্ঘদিন ধরেই যুব ও মাদারের দ্বন্দ্বে উত্তাল দিনহাটা। যুবনেতা নিশীথ প্রামাণিককে বহিষ্কারের পর থেকে আরও বাড়তে থাকে উত্তেজনা।  সোমবার দলের কাজ করে ফেরার পথে হামলার শিকার হন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের দিনহাটা শহর ব্লক সভাপতি অজয় রায়। দিনহাটার পেটলা এলাকায় একটি কর্মিসভা করে ফেরার পথে তাঁর গাড়ি ভাঙচুর হয়। অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান এই যুবনেতা। তৃণমূল কংগ্রেসের দিনহাটা ১  ব্লকের সভাপতি নুর আলম হোসেনের নেতৃত্বে হামলা হয় বলে অভিযোগ করেন অজয় রায়। দিনহাটা থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করেন তিনি। যদিও তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূলের নেতা নূর আলম হোসেন।

ওই দিনই তুফানগঞ্জ মহকুমার যুব তৃণমূলের দলীয় কার্যালয় ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে দলের কর্মীদের একাংশের বিরুদ্ধে। একই দিনে দফায় দফায় বোমাবাজিতে কেঁপে ওঠে দিনহাটার শালমারা এলাকা। স্থানীয় বিধায়ক উদয়ন গুহর অনুগামীদের লক্ষ্য করে বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। গুরুতর জখম হন উদয়ন ঘনিষ্ঠ শালমারা অঞ্চল সভাপতি বিমল রায়, ডিম্পল রায় সহ আরো কয়েকজন। এখনও হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তাঁরা।

এই পরিস্থিতিতেই আজ ফের স্কুলের সামনে গুলি বোমা নিয়ে হামলা চালালো দুষ্কৃতীরা। বারবার শাসকদলের এই দুই গোষ্ঠীর লড়াইকে ঘিরে অশান্তির আবহ তৈরি হচ্ছে দিনহাটায়। আতঙ্কে ঘুম ছুটেছে এলাকার সাধারণ মানুষের।

You might also like