Latest News

সরকার উদ্ধত, একগুঁয়ে, অভিযোগ বিরোধীদের, পেগাসাস নিয়ে সংসদে আলোচনা দাবি

দ্য ওয়াল ব্যুরো : পেগাসাস বিতর্কে বাদল অধিবেশনের শুরু থেকেই কার্যত অচল হয়ে আছে সংসদ। বুধবার ১৪ টি বিরোধী দল দাভি করল, সংসদে পেগাসাস কেলেংকারি নিয়ে আলোচনা করতে হবে। তাদের বক্তব্য, বিষয়টির সঙ্গে দেশের নিরাপত্তা জড়িত। বিরোধী দলগুলির যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “দুর্ভাগ্যজনক বিষয় হল, বিরোধীদের বদনাম করার জন্য সরকার বিভ্রান্তিকর প্রচার শুরু করেছে। সংসদের অধিবেশনে বাধা দেওয়ার জন্য বিরোধীদের ওপরে দোষ চাপানো হচ্ছে।”

পরে বিবৃতিতে বলা হয়, “সংসদ অচল হওয়ার দায় সরকারের। সরকার উদ্ধত ও একগুঁয়ে মনোভাবের পরিচয় দিয়েছে। বিরোধীরা চায়, সংসদে পেগাসাস নিয়ে বিতর্ক হোক।”

বিরোধীদের অভিযোগ, বাদল অধিবেশনে বিনা বিতর্কে একের পর এক বিল পাশ করিয়ে নিচ্ছে সরকার। গত সোমবার তৃণমূলের সাংসদ ডেরেক ওব্রায়েন বলেন, সরকার গড়ে প্রতি সাত মিনিটে সংসদে একটি করে বিল পাশ করাচ্ছে। তিনি টুইট করে বলেন, “বাদল অধিবেশনের প্রথম ১০ দিনে মোদী সরকার ১২ টি বিল পাশ করিয়েছে। গড়ে প্রতিটি বিল পাশ করানোর জন্য সময় দেওয়া হয়েছে সাত মিনিট।”

বুধবার তার পাল্টা জবাব দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নকভি। তিনি বলেন, ডেরেক ওব্রায়েনের যদি পাপড়ি চাটে অ্যালার্জি থাকে, তিনি মাছের ঝোল খেতে পারেন। পরে রাজ্যসভার ডেপুটি লিডার নকভি অভিযোগ করেন, সংসদের সম্মান নষ্ট করার জন্য ষড়যন্ত্র করেছেন ডেরেক।

নকভির কথায়, “তিনি যদি পাপড়ি চাট পছন্দ না করেন, তাহলে মাছের ঝোল খেতে পারেন। কিন্তু সংসদকে মাছের বাজার বানিয়ে তুলবেন না। এখন যেভাবে সংসদের মর্যাদা নষ্ট করার ষড়যন্ত্র হচ্ছে, অতীতে কখনই তা হয়নি।”

মঙ্গলবার বিজেপির সংসদীয় দলের বৈঠকে ডেরেকের মন্তব্য নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সংসদের অ্যানেক্স ভবনে সংসদীয় দলের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পার্লামেন্টকে অপমান করা হচ্ছে। বিল পাশকে পাপড়ি চাট বানানো বলা হচ্ছে। মন্ত্রীর কাছ থেকে বিবৃতি ছিনিয়ে নিয়ে ছিড়ে ফেলা হচ্ছে। এটা ঠিক হচ্ছে না।

কদিন আগে রাজ্যসভায় রেল ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণর হাত থেকে বিবৃতি ছিনিয়ে নিয়ে তা ছিঁড়ে দিয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন। তা নিয়ে তখনও তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল শাসক দল। তার পর রাজ্যসভায় প্রস্তাব পাশ করে শান্তনু সেনকে বাদল অধিবেশনের পুরো মেয়াদের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে।

You might also like