Latest News

পুনেয় প্রবল বৃষ্টিতে মৃত ১১, নিরাপদ জায়গায় সরানো হচ্ছে অনেককে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বুধবার রাত থেকে প্রবল বৃষ্টি শুরু হয়েছে পুনে শহরে। শহরের বিস্তীর্ণ অঞ্চল এখন জলমগ্ন। পুরানো বাড়ির দেওয়াল ধসে ও অন্যান্য দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছেন ১১ জন। জলে ডুবে যাওয়া এলাকা থেকে বহু মানুষকে সরিয়ে আনা হচ্ছে নিরাপদ জায়গায়। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ বৃহস্পতিবার বলেছেন, রাজ্য সরকার পরিস্থিতির ওপরে নজর রাখছে।

দমকলের এক অফিসার বলেছেন, শহরের জলমগ্ন বিভিন্ন এলাকা থেকে অন্তত ৫০০ জনকে বুধবার রাতে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে আনা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালেও দুর্গতদের ত্রাণের কাজ চলছে।

মুখ্যমন্ত্রী টুইট করে বলেছেন, পুনেয় কয়েকজনের মৃত্যুর খবর পেয়ে দুঃখ পেয়েছি। মৃতদের পরিবারকে গভীর সহানুভূতি জানাই। আমরা তাঁদের সবরকম সাহায্য করব। পুনের কালেক্টরের সঙ্গে রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর সব সময় যোগযোগ রাখছে।

চিফ ফায়ার অফিসার প্রশান্ত রানপিসে বলেন, বুধবার মাঝরাতে আর্নেশ্বর অঞ্চলে প্রবল বৃষ্টিতে একটি বাড়ির দেওয়াল ধসে পড়ে। ন’বছরের একটি বালক সহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। শাহকার নগর অঞ্চলে এক স্কুলবাড়ির কাছে একজনের মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছে। সিনহগাদ অঞ্চলে রাস্তায় গাড়িতে জল ঢুকে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। আর্নেশ্বর ও ওয়ানাওয়াড়ি অঞ্চল থেকে দু’জন নিখোঁজ হয়ে গিয়েছেন।

দেবেন্দ্র ফড়নবিশ টুইট করে জানিয়েছেন, এনডিআরএফের দু’টি টিম পাঠানো হয়েছে পুনেয়। আরও দু’টি টিম পাঠানো হয়েছে বারামতি অঞ্চলে।

দমকলের এক অফিসার বলেছেন, বৃহস্পতিবার সকালে বৃষ্টি থেমেছে। কিন্তু বহু এলাকায় এখনও জল জমে আছে। কয়েকটি জায়গা থেকে দেওয়াল ধসে পড়া ও গাছ উপড়ে পড়ার খবর আসছে। শহরের যে জায়গাগুলি এখনও জলমগ্ন হয়ে রয়েছে, তার মধ্যে আছে সিনহগাদ রোড, ধানাকাওয়াড়ি, বালাজিনগর, অম্বেগাঁও, শাহকার নগর, পার্বতী, কোমহেওয়াড়ি এবং কিরকাওয়াড়ি।

You might also like