Latest News

কৃষি আইনগুলি বাতিল করার জন্য তৈরি হচ্ছে বিল, সহায়ক মূল্য নিয়েও ভাবছে কেন্দ্র

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) ঘোষণা করেন, বিতর্কিত তিনটি কৃষি বিল বাতিল করা হল। সোমবার সরকারি সূত্রে জানা যায়, কৃষি আইনগুলি বাতিল করার জন্য একটি বিল এখনও প্রধানমন্ত্রীর অফিসের অনুমোদন পায়নি। তিনটি আইন বাতিল করার জন্য আলাদা তিনটি বিল না এনে একটিই বিল আনা হচ্ছে। কৃষি মন্ত্রক এখন ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য নিয়ে নির্দেশিকা তৈরি করছে। কৃষকরা দাবি করেছেন, যতদিন না ফসলের ন্যূনতম মূল্য পাওয়া নিশ্চিত করা হচ্ছে, ততদিন আন্দোলন থামবে না।

কৃষি আইনগুলি বাস্তবে রূপায়ন করার জন্য কয়েকটি বোর্ড গঠিত হয়েছিল। সেই বোর্ডগুলি এখন ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে বোর্ডগুলি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তাও বাতিল করা হয়েছে।

সম্ভবত আগামী বুধবারই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা কৃষি আইনগুলি রদ করার প্রস্তাব অনুমোদন করতে চলেছে। তারপর সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের জন্য বিল পেশ করা হবে।

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদম্বরম প্রশ্ন তুলেছিলেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অনুমোদন ছাড়া মোদী কৃষি আইনগুলি প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করলেন কীভাবে। তিনি টুইট করে বলেন, ‘আপনারা কি খেয়াল করেছেন, কৃষি আইনগুলি বাতিল করার আগে মন্ত্রিসভার কোনও বৈঠক হয়নি।’ চিদম্বরমের বক্তব্য, একমাত্র বিজেপির আমলেই কোনও আইন তৈরি বা বাতিল করতে মন্ত্রিসভার অনুমোদন লাগে না।

গত শনিবার কৃষক নেতারা বলেন, আগেই স্থির হয়েছিল, শীত অধিবেশনের সময় সংসদের উদ্দেশে ট্র্যাক্টর মিছিল করা হবে। সেই কর্মসূচি বাতিল হচ্ছে না।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার কোর কমিটির সদস্য দর্শন পাল বলেন, “আমাদের ট্র্যাক্টর মিছিলের কর্মসূচি বাতিল হয়নি। ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের দাবিতে আমরা আগামী দিনে কী কর্মসূচি নেব, তা স্থির হবে রবিবার।”

সংসদের শীত অধিবেশন শুরু হচ্ছে আগামী ২৯ নভেম্বর। সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা আগেই জানিয়েছিল, প্রতিদিন সংসদের উদ্দেশে ট্র্যাক্টর মিছিলে অংশ নেবেন ৫০০ জন কৃষক।

শনিবার কৃষক ইউনিয়নগুলির কড়া সমালোচনা করেন অসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী ভি কে সিং। তিনি বলেন, অনেক সময় আমরা সব কিছু বুঝেও অন্ধভাবে অন্যকে অনুসরণ করি। কৃষক ইউনিয়নগুলির উদ্দেশে মন্ত্রীর প্রশ্ন, কৃষি আইনগুলিকে কালা কানুন বলছেন কেন? তাদের মধ্যে কোন বিষয়টাকে ‘কালো’ মনে হচ্ছে?

You might also like