মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩

মাঠেই লুটিয়ে পড়ে আচমকা মারা গেল একুশের ক্রিকেটার অনিকেত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের এক তরুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটারের মর্মান্তিক মৃত্যু। মঙ্গলবার সকালে অনুশীলনে নেমে আচমকা লুটিয়ে পড়ার পরে মৃত্যু হলো পাইকপাড়া ক্লাবের ক্রিকেটার অনিকেত শর্মার (২১)।

খড়্গপুরের ছেলে অনিকেত কলকাতায় থাকতেন খেলার জন্য। বুধবার পাইকপাড়ার সঙ্গে খেলা ছিল মনোহর পুকুর ক্লাবের। এ দিন সকালে টালা পার্কের মাঠে অনুশীলন করছিলেন পাইকপাড়ার খেলোয়াড়রা। নেট প্র্যাকটিসের এনক্লোজারের ঠিক বাইরে ওয়ার্ম-আপের সময় ফুটবল খেলছিলেন সকলে। অনিকেতের সতীর্থরা জানিয়েছেন, ওয়ার্ম-আপ চলার সময় হঠাৎই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তরুণ এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। সতীর্থ এবং ক্লাব কর্তারা অ্যাম্বুলেন্স ডেকে সঙ্গে সঙ্গে নিয়ে যান পাশেই আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসকরা অনিকেতকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মাঠে মৃত্যু হওয়ার কারণে ময়না তদন্ত হচ্ছে তরুণ এই ক্রিকেটারের। তারপরই জানা যাবে মৃত্যুর সঠিক কারণ। তবে চিকিৎসকদের অনুমান, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। সোমবার সকালেও অনুশীলন করেছিলেন অনিকেত। নেটে বল এবং ব্যাটও করেন। কলকাতার ক্রিকেট মহলে পরিচিত নাম অনিকেত। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া ক্রীড়ামহলে।

গত ২৩ ডিসেম্বর একই ঘটনা ঘটেছিল মুম্বইয়ের ভাণ্ডুপে। একটি ক্যাম্বিস টুর্নামেন্টে ব্যাট করতে করতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিল তরুণ ক্রিকেটার বৈভব কেশরকরের। অনিকেতের ঘটনা যেন সেটাই মনে করিয়ে দিল।

গত তিন বছরে কলকাতায় এই নিয়ে তিনজন ক্রিকেটারের মর্মান্তিক মৃত্যু হলো মাঠে নেমে। ২০১৬ সালে ইস্টবেঙ্গলের ক্রিকেটার অঙ্কিত কেশরী রান নিতে গিয়ে বিপক্ষ বোলারের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত হন এবং তার দিন তিনেকের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছিলেন। এরপর গতবছরের মাঝামাঝি সময়ে বিবেকানন্দ পার্কে অনুশীলনে নেমে বজ্রপাতে মৃত্যু হয় শ্রীরামপুরের ছেলে দেবব্রত পালের।

Shares

Comments are closed.