‘কথাবলা’ কুকুর! মালকিনের ট্রেনিংয়ে নেট দুনিয়ার নয়া তারকা স্টেলা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: কথাবলা টিয়াপাখি অনেকেই দেখেছেন। এদের জুড়িদার হিসেবে ময়না আর কাকাতুয়ার কথাও শোনা যায়। কিন্তু তাই বলে কথাবলা কুকুর! এমন বিরল ঘটনার কথা এর আগে কেউ কখনও শুনেছেন বলে মনে হয় না। তবে এবার হদিশ মিলেছে এমনই এক কুকুরের। নাম তার স্টেলা। মার্কিন মুলুকের এই কুকুর এমনই ট্রেনিং পেয়েছে যে মনের ভাব বোঝাতে তার জুড়ি মেলা ভার। কখন কী চাই দিব্যি মালিককে সেটা বুঝিয়ে দেয় স্টেলা। 

    তবে একদম শব্দ করে মানুষের মতো বা কথাবলা পাখির মতো কথা বলতে পারে না স্টেলা। খালি যখন যা ইচ্ছে হয় সেইমতো বোতাম টিপে জানান দেয় নিজের মালিককে। স্টেলার মালকিন ক্রিস্টিনা হাঙ্গার হলেন একজন স্পিচ প্যাথলজিস্ট। তিনিই ওই অসাধ্যসাধন করেছেন। কাস্টমাইজড কি-বোর্ডের সাহায্যে নিজের পোষ্যকে মনের ভাব প্রকাশ করা শিখিয়েছেন ক্রিস্টিনা।

    View this post on Instagram

    Stella shows us that communication is way more than just saying words! This morning while Jake was on his computer and I was reading, Stella wanted us to look at her. • After she told us “Now now now now Stella Stella look,” Stella patiently waited for us to understand what she was saying. When I finally “got it” and told her I was watching, Stella pounced on her ball. • Stella got our attention by telling us to look at her, waited for confirmation that we understood, then went ahead and started playing. • Successful communication includes sharing a message with someone, waiting for them to respond, understanding their response, and responding or acting accordingly. I love that our little talking dog is such an amazing communicator! ???

    A post shared by Christina Hunger, MA, CCC-SLP (@hunger4words) on

    স্টেলার ওই কাস্টমাইজড কি-বোর্ডে ২৯ রকমের কথার জন্য বিশেষ ২৯টি বোতাম রয়েছে। যার কোনওটি টিপলে ‘তাকানো’ বোঝায়। কোনওটার মানে ‘খেলা করা’, কোনওটার মানে ‘বেড়াতে যাওয়া’, কোনওটায় বা ‘খিদে পেয়েছে’ বোঝা যায়। থাবা দিয়ে এইসব বোতাম টিপেই মনের ভাব ক্রিস্টিনাকে বুঝিয়ে দেয় স্টেলা। সেজন্য বিশেষ ট্রেনিংও দেওয়া হয়েছে কুকুরটিকে। ক্রিস্টিনা জানিয়েছেন, অনেকসময় একসঙ্গে তিন-চারটে বোতামও টিপে দেয় স্টেলা। সেসময় প্রায় একটা গোটা বাক্যই বুঝিয়ে ফেলে সান দিয়োগোর এই সারমেয়। 

    বিশেষ এই ট্রেনিংয়ের দৌলতে রাতারাতি নেট দুনিয়ার স্টার হয়ে গিয়েছে এই কুকুর স্টেলা। সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন মাধ্যম যেমন ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম সব জায়গাতেই ভাইরাল হয়েছে স্টেলার কীর্তি। একটা ভিডিওতে দেখা গেছে ‘লুক’ বা ‘তাকাও’ বোতাম বারবার টিপছে স্টেলা। ক্রিস্টিনা জানিয়েছেন, এমনটা হামেশাই করে থাকে তাঁর পোষ্য। মালিকের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য এটা যে বেশ সহজ উপায় সেটা বুঝে গিয়েছে স্টেলা। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় ৫ লক্ষের কাছাকাছি ফ্যান ফলোয়ার রয়েছে এই কুকুরবাবাজির। 

    ক্রিস্টিনা জানিয়েছেন, ঘুরতে যেতে খুব ভালবাসে স্টেলা। তাই দিনের বেশিরভাগ সময়ে ‘তাকাও’ আর ‘বাইরে’ এই দুটো বোতামই সবচেয়ে বেশিবার টিপতে দেখা যায় তাঁর পোষ্যকে। নেট দুনিয়ায় স্টেলার কীর্তিকলাপ দেখে হেসে গড়াচ্ছেন নেটিজেনরা। মুগ্ধ প্রায় সকলেই। ভালবাসা জানিয়ে সকলেই বলছেন স্টেলা খুবই মিষ্টি। ট্রেনিং পেয়ে এমন অদ্ভুত ক্ষমতা রপ্ত করতে পারার জন্য তাকে কুর্নিশও জানিয়েছেন নেটিজেনরা। পাশাপাশি সকলেই অভিবাদন জানিয়েছেন স্টেলার মালকিন ক্রিস্টিনাকেও।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More