শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১

নিক-প্রিয়াঙ্কাকে নিয়ে বিতর্কিত আর্টিকল, নিজের মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইলেন লেখিকা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘সাম্প্রতিক সময়ের দুর্নীতিগ্রস্ত তারকা’। ঠিক এই তকমাটাই সদ্য বিবাহিত প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার গায়ে এঁটে দিয়েছিলেন লেখিকা মারিয়া স্মিথ। তবে এখানেই থামেননি তিনি। লিখেছিলেন বিতর্কিত এক আর্টিকল। The Cut ওয়েবসাইটে ফলাও করে প্রকাশিতও হয়েছিল সেই লেখা। আর সেখানেই মারিয়া বলেছিলেন, নিক-প্রিয়াঙ্কার বিয়ের সবটাই নাকি প্রি-প্ল্যানড। একেবারে ছক কষে, সবদিক মেপেই পা ফেলেছিলেন পিগি চপস। সম্পর্ক গড়া থেকে বিয়ে সবই নাকি আগে থেকেই ঠিক করে রেখেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। এমনটাই দাবি করেছিলেন, মারিয়া স্মিথ।

এ বার নিজের লেখার জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন মারিয়া। টুইট করে তিনি লিখেছেন, “প্রিয়াঙ্কা এবং নিকের কাছে আমি ক্ষমা চাইছি। আমি ক্ষমাপ্রার্থী তাঁদের কাছেও যাঁরা আমার লেখা পড়ে কষ্ট পেয়েছেন। যা লিখেছি তার সম্পূর্ণ দায় আমার। আমি ভুল ছিলাম।”

মারিয়ার ওই আর্টিকল প্রকাশ পাওয়ার পরে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ওঠে সমালোচনার ঝড়। ভীষণ ভাবে বিরক্ত হন অভিনেত্রী সোনম কাপুর। প্রিয়াঙ্কাকে এ ভাবে শিকার হতে দেখে সরব হন তিনি। জানান তীব্র প্রতিবাদ। টুইট করে লেখেন, “এই লেখা একজন মহিলা লিখেছেন। এটা ভাবতেই সবচেয়ে অবাক লাগছে।“ মারিয়ার লেখনীকে লিঙ্গবৈষ্যম্য, বর্ণবিদ্বেষ এবং বিরক্তিকর বলেও মন্তব্য করেন সোনম। তবে শুধু সোনম নন, সরব হন আরও অনেকেই। মারিয়ার লেখার তীব্র প্রতিবাদ করে পাল্টা টুইট করেন নিক জোনাস এবং তাঁর বান্ধবী সোফি টার্নারও।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শোরগোল শুরু হতেই অবশ্য নিজেদের ওয়েবসাইট থেকে মারিয়া স্মিথের এই লেখাটি তুলে নেয় The Cut কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছে, এই লেখা তাদের ওয়েবসাইটের মানের সঙ্গে খাপ খায় না। তাই ডিলিট করে দেওয়া হয়েছে এই লেখা। এবং এই ঘটনার জন্য তারা ক্ষমাপ্রার্থী।

এই বিষয়ে মুম্বইয়ের একটি ইভেন্টে প্রিয়াঙ্কাকেও জিজ্ঞাসা করেন সাংবাদিকরা। অভিনেত্রীর সাফ জবাব ছিল, তিনি এসব নিয়ে এখন ভাবতেই চান না। প্রিয়াঙ্কা বলেন, জীবনের খুব সুন্দর সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তাই এসব নিয়ে ভাবতেই চান না।

Comments are closed.