মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২২

নকল বন্দুক দেখিয়ে ছিনতাইয়ের চেষ্টা, ‘আয়রন লেডি’র প্যাঁচে ধরাশায়ী আততায়ী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাশে বসে থাকা তরুণীকে নকল বন্দুক দেখিয়ে মোবাইল দিতে বলেছিলেন এক ব্যক্তি। কিন্তু মোবাইলের বদলে এল ঘুঁষি, লাথি। মোবাইল তো পেলেনই না, উল্টে জায়গা হলো শ্রীঘরে।

এমনটাই ঘটেছে ব্রাজিলের রিও-ডি-জেনিরোতে। ওই তরুণী আসলে ব্রাজিলের বিখ্যাত মিক্স মার্শাল আর্টিস্ট পোলিয়েনা ভিয়েনা। ব্রাজিলে তিনি ‘আয়রন লেডি’ বলে পরিচিত। জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে নিজের অ্যাপার্টমেন্টে ফেরার জন্য ক্যাবের অপেক্ষা করছিলেন পোলিয়েনা। তখনই ওই ব্যক্তি এসে তাঁর পাশে বসেন। প্রথমে সময় জিজ্ঞাসা করেন। কিছুক্ষন পর পোলিয়েনা মোবাইল বের করলে ওই ব্যক্তি বন্দুক উঁচিয়ে তাঁকে বলেন, মোবাইল না দিলে গুলি করে দেবেন।

পোলিয়েনার বক্তব্য, “বন্দুক দেখেই আমার মনে হয়েছিল ওটা আসল নয়। আর ওই ব্যক্তি আমার এতটাই কাছে ছিলেন যে আমি সুযোগ নিই। প্রথম ওর মুখে দুটো ঘুঁষি মারি, তারপর একটা লাথি মারি। রাস্তায় পড়ে গেলে ওর উপর চেপে ‘রেয়ার নেক চোক’ প্যাঁচে কাবু করে ফেলি। কিছুক্ষণ পর পুলিশ এলে পুলিশের হাতে তুলে দিই ওই ব্যক্তিকে।”

ওই ব্যক্তির ছবি দিয়ে পুরো ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন পোলিয়েনা। লোকটির চেহারা দেখেই বোঝা যাচ্ছে পোলিয়েনার ঘুঁষি-লাথিতে তাঁর কী অবস্থা হয়েছে। পুরো মুখের নকশায় বদলে দিয়েছেন পোলিয়েনা। সোশ্যাল মিডিয়ায় সবাই পোলিয়েনার সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন। কেউ আবার বলেছেন, বেশি ঝুঁকি নিয়ে ফেলেছেন মিক্স মার্শাল আর্টিস্ট। কার্ডবোর্ডের না হয়ে বন্দুকটি যদি আসল হতো, তাহলে অন্য কিছুও ঘটে যেতে পারত।

এই ঘটনার পর অবশ্য অ্যাপার্টমেন্টে গিয়ে নিজের ডিনার সারেন পোলিয়েনা। যদিও তিনি জানিয়েছেন, পরদিন সকালে হাতে একটু ব্যথা হয়েছিল।

Shares

Comments are closed.