বুধবার, আগস্ট ২১

প্রথমবার ভূকম্পন মঙ্গলে! বিজ্ঞানীরা নাম দিলেন ‘মার্শকোয়েক’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রথমবারের জন্য ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে মঙ্গল গ্রহের মাটিতে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, গত মঙ্গলবার প্রথমবার একটা হাল্কা কম্পন অনুভূত হয়েছে মঙ্গলে। পাশাপাশি বিজ্ঞানীরা এও জানিয়েছেন, এই কম্পনের অনুভূতি তাঁদের এ যাবৎ সমস্ত গবেষণার ক্ষেত্রে ইতিবাচক দিশা দেখাচ্ছে।

মঙ্গল গ্রহ। পৃথিবীর প্রতিবেশী এই গ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব রয়েছে কিনা তা নিয়ে বহুদিন ধরেই গবেষণা চালাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। এর মধ্যেই বিভিন্ন গবেষণার পর বিজ্ঞানীদের দাবি লাল গ্রহে জলের সন্ধানও পাওয়া গিয়েছে। আর এ বার প্রথমবারের জন্য ভূমিকম্প হয়েছে মঙ্গলে, এমনটাই দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। কম্পনের নাম দেওয়া হয়েছে ‘মার্শকোয়েক’। ২০১৮-র ডিসেম্বরে মঙ্গলে মহাকাশযান ‘ইনসাইট’ পাঠিয়েছিল নাসা। এই ‘ইনসাইট’-এর ল্যান্ডারেই ছিল গম্বুজ আকারের ‘সিস’ (SEIS) নামের এক যন্ত্র। এই ‘সিস’-এর র‍্যাডারেই ধরা পড়েছে মঙ্গল গ্রহের কম্পন।

বছরের পর বছর ধরে এই মার্শকোয়েক শোনার জন্য অপেক্ষা করছিলেন বিজ্ঞানীরা। অবশেষে এল সাফল্য। সামান্য হলেও মঙ্গল গ্রহে শোনা গেল কম্পন। নাসার তরফে জানানো হয়েছে গত ৬ এপ্রিল অনুভূত হয়েছিল এই কম্পন। কী কারণে এই কম্পন অনুভূত হয়েছে আপাতত সেই ব্যাপারেই গবেষণা চালাচ্ছেন নাসার বিজ্ঞানীরা। তবে বিজ্ঞানীরা নিশ্চিত করে এটা জানিয়েছেন যে, মঙ্গল গ্রহের অভ্যন্তর থেকে শোনা গিয়েছে কম্পনে আওয়াজ। এটা হাওয়ার শব্দ নয়। তবে এর আগেও তিনবার হাল্কা কম্পন অনুভূত হয়েছিল মঙ্গল গ্রহের মাটিতে।

দীর্ঘদিন পর সাফল্য আসায় স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত বিজ্ঞানীরা। তাঁরা বলছেন, “আগামীদিনে হয়তো প্রাণের সন্ধানও মিলবে লাল গ্রহে। এই কম্পনের অনুভূতিই হয়তো শুরু। এই ব্যাপারে গবেষণা করতে গিয়েই হয়তো আরও নতুন নতুন এবং বিস্ময়কর তথ্য উঠে আসবে মঙ্গল গ্রহের ব্যাপারে।“ বিজ্ঞানীদের অনুমান হয়তো উল্কাপাতের কারণেই এই কম্পন অনুভূত হয়েছে। ফরাসি স্পেস এজেন্সি (CNES) মূলত পর্যবেক্ষণ করে ‘সিস’-কে। এই সংস্থাও জানিয়েছে, গত ৬ এপ্রিল ‘সিস’-এর র‍্যাডারে ধরা পড়েছে হাল্কা একটা কম্পন। তীব্রতা খুব বেশি না হলেও মঙ্গলের বুকে কম্পন যে হয়েছে সে ব্যাপারে নিশ্চিত করেছে এই ফরাসি সংস্থা।

Comments are closed.