বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯

রোলার কোস্টারে চড়ে দুর্ধর্ষ ক্যাচ, তবে বল নয় উড়ন্ত মোবাইল, দেখুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এ যেন সাক্ষাৎ জন্টি রোডস! নিখুঁত রিফ্লেক্স। একচুল এদিক-ওদিক হলেই অনেক কিছু হতে পারত। তবে মুহূর্তের পারফেক্ট অ্যাকশনে সবটা সামলে নিলেন তিনি।

নিউজিল্যান্ডের এক যুবক। চড়েছিলেন রোলার কোস্টার রাইডে। স্পিড যখন তুঙ্গে সে সময়ই তাঁর সামনে থাকা কারও পকেট থেকে উড়ে এল একখানা ফোন। চোখের পলক পড়ার আগেই মুঠোয় ফোনটা ধরে ফেললেন ওই যুবক। ভাগ্যিস এ দৃশ্য ক্যামেরায় বন্দি হয়েছিল। নইলে হয়তো কেবল মুখের কথায় এসব বিশ্বাস করতেন না কেউই।

স্যামুয়েল নামের ওই যুবক এখন ইন্টারনেট সেনসেশন। রাতারাতি বনে গিয়েছেন স্টার। তাঁর নিখুঁত রিফ্লেক্সের ফ্যান হয়ে গিয়েছেন নেটিজেনরাও। জানা গিয়েছে, স্পেনে বেড়াতে গিয়ে একটি রোলার কোস্টারে চড়েছিলেন স্যামুয়েল। সেখানেই ঘটে এই কাণ্ড। প্রবল গতিতে রোলা কোস্টার উঁচুতে উঠতেই অসাবধানে কারও পকেট থেকে পড়ে যায় মোবাইল ফোন। হাওয়ার দাপটে উড়ে আসে স্যামুয়েলে সামনে। এক ঝটকায় হাত বাড়িয়ে ফোনটা ধরে নেন তিনি। তারপর যার ফোন তাঁর দিকে হাত তুলে আশ্বাস দিয়ে জানান ফোন ঠিক আছে। স্যামুয়েলের মুখে তখন লেগে বিজয়ীর হাসি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ভাইরাল স্যামুয়েলের দুরন্ত রিফ্লেক্সের ভিডিয়ো। সেখানে দেখা গিয়েছে এমন নিখুঁত অ্যাকশনের আগেও পাশে বসা যাত্রীর সঙ্গে দিব্যি হাসি-ঠাট্টায় মেতেছিলেন স্যামুয়েল। কিন্তু পলকেই তিনি ঘটিয়েছেন এক অসামান্য কাণ্ড। স্যামুয়েলের কথায়, “হঠাৎই দেখি সামনে একটা ফোন উড়ে এল। কিছু না ভেবেই হাত বাড়িয়েছিলাম। ফোনটা ধরে ফেলতে পেরেছি। কী ভাবে কী হলো নিজেও বিশেষ বুঝিনি।”

দেখুন সেই ভিডিয়ো।

Comments are closed.