সোমবার, অক্টোবর ১৪

গণবিক্ষোভে উত্তাল ইরাক, লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃত্যু, কথা বলার আবেদন প্রধানমন্ত্রীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সরকার-বিরোধী গণবিক্ষোভে উত্তাল ইরাকের রাজধানী বাগদাদ-সহ একাধিক শহর। একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের দাবি, পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে গত তিনদিনে প্রাণ হারিয়েছেন কমপক্ষে ৩৩ জন। আহত হয়েছেন ১৫০০-র বেশি মানুষ।

যত সময় এগোচ্ছে, তত বাড়ছে লাশের সংখ্যা। পরিস্থিতি হাতের বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে দেখে শুক্রবার বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে বসে কথা বলার আবেদন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী আদিল আবদুল মাহদি।

শুধু বৃহস্পতিবারই বাগদাদে একজন পুলিশ আধিকারিক-সহ ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। বাগদাদ ছাড়াও ইরাকের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ শহর বিক্ষোভের জেরে অচল। সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি অভিযোগ তুলে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে রক্তক্ষয়ী গণবিক্ষোভ চলছে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে।

নাসারিয়ায় আটজন ও আমরা শহরে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। নাসারিয়া শহরে মৃতদের মধ্যে একজন পুলিশ আধিকারিকও আছেন। তাঁকে বিক্ষোভকারীরা পিটিয়ে মেরেছে বলে অভিযোগ। সেনা নামিয়েও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি।

প্রধানমন্ত্রীর আবেদনে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত কোনও ইতিবাচক উত্তর দেওয়া হয়নি বিক্ষোভকারীদের তরফে। স্পষ্ট বলে দেওয়া হয়েছে, আগে পদত্যাগ তারপর কথা। ইরাক সরকারের সচিবালয়ের সামনে কয়েক হাজার মানুষের জমায়েত। অন্য প্রদেশের সচিবালয়গুলির সামনেও একই ছবি। ঘরোয়া অশান্তি, সন্ত্রাসে সারা বছরই জেরবার থাকে ইরাক। ফের সেখানেই এমন অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি।

Comments are closed.