অ্যাঞ্জেলিনা জোলির আদল আনতে ৫০টি সার্জারি! বিকৃত ছবি পোস্ট করায় গ্রেফতার তরুণী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যাই হয়ে যাক না কেন নিজেকে অ্যাঞ্জেলিনা জোলির মতো সাজানোর পণ করেছিলেন ইরানের তরুণী সাহার তাবার। শোনা গিয়েছিল ৫০টি সার্জারি করিয়েছিলেন সাহার। তারপর যে চেহারা প্রকাশ্যে এসেছিল তা দেখে আঁতকে উঠেছিলেন সকলেই। নতুন চেহারায় ‘কঙ্কাল’ তকমা পেয়েছিলেন তিনি। ইনস্টাগ্রামে বরাবরই বিখ্যাত ইরানের এই তরুণী। অসংখ্য ফলোয়ার তাঁর। নিজের লুক ইন্সটাগ্রামেই প্রকাশ করেছিলেন সাহার। একাধিক ছবি পোস্টের পর থেকেই দেদার ট্রোলড হতে শুরু করেন ওই তরুণী।

এই ইনস্টাগ্রাম স্টারকে এ বার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, হলিউড অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির আদলে নিজেকে গড়তে গিয়ে যে বিকৃত ছবি সাহার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন তার জন্যই গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বের চেহারা নিয়ে এ ভাবে মশকরা করা পুলিশের নজরে আদতে ঘোরতর অন্যায়। সামাজিক এবং নৈতিক দুর্নীতির দায়ে তাই আটক করা হয়েছে সাহার তাবারকে। পুলিশ জানিয়েছে, নেট দুনিয়ায় এ ধরনের ছবি শেয়ার করে বেআইনি ভাবে টাকাও উপার্জন করেছিলেন সাহার তাবার। এমনকি যুব সম্প্রদায়ের অনেককেই এমন ভুল কাজ করার জন্য অনুপ্রেরণা দিয়েছিলেন তিনি।

যেহেতু ইনস্টাগ্রামে সাহার নিজে একজন পরিচিত মুখ, তাই এমন আচরণ করার আগে একটু ভাবা উচিত ছিল তাঁর। যদিও সেসব না ভেবেই নিজের এমন বিকৃত চেহারার ছবি শেয়ার করেন সাহার। নিজের আচরণে একটুও অনুতপ্তও নন তিনি। বরং ভাব এমন, যা হয়েছে ভালোই হয়েছে। এতে কোনও ভুল নেই। তাই এ বার সাহার তাবারকে উচিত শিক্ষা দিতে তাঁকে গ্রেফতার করেছে ইরান পুলিশ। একাধিক ধারায় তাঁর বিরুদ্ধে রুজু হয়েছে মামলাও।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অন্যান্য প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক কিংবা টুইটার ইরানে নিষিদ্ধ। কেবল ইনস্টাগ্রামই চলে সেখানে। তাই এই প্ল্যাটফর্মেই জনপ্রিয় হয়েছিলেন সাহার তাবার। তাও আবার এমন বিকৃত ছবি পোস্ট করার পর। তবে সাহারের দাবি ছিল অ্যাঞ্জেলিনা জোলির মতো মুখের আদল আনার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। কিন্তু ৫০টি সার্জারি মোটেও করাননি। সবটাই গুজব বলে উড়িয়ে দেন তিনি। সাহার আরও বলেন, ওজন কমিয়েছিলেন ঠিকই। তবে সেটা ৫ থেকে ৭ কিলো। তার বেশি নয়। সাহারের দাবি ছিল অস্বাভাবিক কোনও কিছুই করেননি তিনি। কেবল লাইপোসাকশন করিয়ে নাক এবং ঠোঁটে সামান্য বদল এনেছিলেন। বাকিটা মেকআপ আর ফটোশপের কেরামতি।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.