মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৭

ইমরানের নতুন ভূগোল তত্ত্ব, জার্মানি-জাপান নাকি প্রতিবেশী!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দুটো দেশের মধ্যেকার দূরত্ব ৯ হাজার কিলোমিটারের বেশি। অথচ সেই দুই দেশকে পড়শি বানিয়ে দিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বললেন জার্মানি ও জাপানের সীমান্তে দু’দেশ মিলিয়ে অনেক শিল্প-কারখানা স্থাপন করেছে। ফলে দু’দেশেরই উন্নতি হচ্ছে। ইমরানের এই মন্তব্যকে ঘিরে হাসির ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর সেই ভিডিয়োকেই টুইট করেছেন শিল্পপতি আনন্দ মহিন্দ্রা।

নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটা ভিডিয়ো শেয়ার করেছে আনন্দ মহিন্দ্রা। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একটা সম্মেলনে ইমরান খান বলছেন। সেখানে ইমরানকে বলতে শোনা যায়, “যত বেশি দুটো দেশ নিজেদের মধ্যে বাণিজ্য বাড়াবে, তত দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক ভালো হবে। জার্মানি ও জাপান দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে পর্যন্ত লক্ষ লক্ষ মানুষ মেরেছে। কিন্তু এখন জাপান ও জার্মানির সীমান্তে যৌথ শিল্প-কারখানা আছে। তাই যেহেতু এখন দু’দেশের অর্থনৈতিক বিষয় একই জিনিসের উপর নির্ভর করছে, তাই তারা কখনওই একে অন্যের ক্ষতি চাইবে না।” এই টুইট করে সেখানে মহিন্দ্রা লেখেন, “ভগবানকে ধন্যবাদ, এই ব্যক্তিকে আমার ইতিহাস বা ভূগোলের শিক্ষক না করার জন্য।”

ইমরানের এই ভিডিয়ো প্রকাশের পর থেকেই তাঁকে নিয়ে শুরু হয়েছে কটাক্ষ। জার্মানি ও জাপান দুটি আলাদা আলাদা মহাদেশের দেশ। দু’দেশের মধ্যে ফারাক ৯ হাজার কিলোমিটারের বেশি। অথচ এই দুই দেশকে পড়শি বানিয়ে দিলেন ইমরান। তাঁর ইতিহাস ও ভূগোলের জ্ঞানের জন্য সবাই তাঁর কটাক্ষ করেছেন।

কেউ বলছেন, ভাগ্যিস ইমরান আমাদের প্রধানমন্ত্রী নন। কেউ আবার বলেছেন, শুধু জার্মানি-জাপানকে পড়শি বলাই নয়, এর আগে আফ্রিকাকে দেশ ও চিনের বুলেট ট্রেন আলোর থেকেও বেশি গতিবেগে চলে বলে মন্তব্য করে হাসির খোরাক হয়েছিলেন ইমরান। এই নিয়ে কটাক্ষ করেছেন ইমরানের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান পিপলস পার্টির বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারিও। তিনি বলেন, “পড়াশোনা না করে সারাজীবন ক্রিকেট খেললে তাই হয়। এটা গোটা দেশের লজ্জা।”

Comments are closed.