শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০

কাশ্মীরিদের স্বাধীনতার লড়াইকে রোখার ক্ষমতা নেই মোদী সরকারের, হুঁশিয়ারি ইমরানের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কয়েকদিন আগেই সংসদের যৌথ অধিবেশনে নিজের বক্তব্য রাখতে গিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছিলেন, কাশ্মীরের উপর থেকে স্পেশ্যাল স্ট্যাটাস তুলে নেওয়ায় ফের পুলওয়ামার ধাঁচে হামলা হতে পারে। এ বার ভারতের স্বাধীনতা দিবসের পরের দিনই ইমরান সরাসরি তোপ দাগলেন নরেন্দ্র মোদীকে। কার্যত হুঁশিয়ারির সুরে ইমরান বলেন, মোদী সরকার যতই সেনার সাহায্যে কাশ্মীরে হিন্দুদের ক্ষমতায়নের চেষ্টা করুন না কেন, যখন কোনও দেশ স্বাধীনতার জন্য ঐক্যবদ্ধ্য হয়, তখন কোনও শক্তিই তাদের আটকাতে পারে না।

শুক্রবার টুইট করে ইমরান বলেন, “ফাসিস্ত মোদী সরকার ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে যতই হিন্দুদের ক্ষমতায়নের চেষ্টা করুন, যত রকম বর্বর পদ্ধতিই নিন না কেন, তা ব্যর্থ হবে। মোদী সরকার ভারতের সেনাবাহিনীর সাহায্যে জঙ্গি, সন্ত্রাসবাদীদের হয়তো হারাতে পারবেন। কিন্তু ইতিহাস সাক্ষী আছে, যখন একটা দেশ স্বাধীনতার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়, যখন তাদের আর মৃত্যুর কোনও ভয় থাকে না, তখন দুনিয়ার কোনও শক্তি তাদের লক্ষ্যপূরণ থেকে আটকাতে পারে না।”

তারপরেই ইমরান বলেন, ” আর ঠিক কারণেই মোদী সরকারের কাশ্মীরে হিন্দুদের ক্ষমতা দেওয়ার ও কাশ্মীরের স্বাধীনতার সংগ্রামকে বন্ধ করার ফাসিস্ত প্রক্রিয়া ব্যর্থ হবে।”

এর আগে ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিন টুইট করে ইমরান আন্তর্জাতিক কমিউনিটির সমালোচনা করেছিলেন। তিনি বলেন, “গোটা বিশ্ব কি চুপচাপ ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে মুসলিমদের উপর আরও একবার স্রেব্রেনিকার মতো ঘটনা ঘটুক, সেটা চান। যদি এরকম হয়, তাহলে আমি আন্তর্জাতিক মহলকে সতর্ক করতে চাই, যে এর ফল খুব খারাপ হবে। হিংসার চক্রের ফলে মুসলিমদের উপর অত্যাচার হলে তার ফলও ভালো হবে না।”

আরও একটি টুইট করে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে ১২ দিন ধরে কার্ফু চলছে। অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। আরএসএস গুন্ডাদের পাঠানো হয়েছে। যোগাযোগের সব মাধ্যম বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। এরকম ভাবেই আগে গুজরাতে মোদী মুসলিমদের বিতারিত করেছিলেন।”

১৫ অগস্ট কালাদিবস পালন করেছে পাকিস্তান। এ দিন পাকিস্তানের সব সংবাদপত্রে কালো রংয়ের বর্ডার দেওয়া ছিল। ইমরান সহ সব রাজনৈতিক ব্যক্তি নিজেদের ফেসবুক প্রোফাইলের ছবিতে কালো বর্ডার দিয়েছিলেন। দেশের সব জায়গায় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে রাখা হয়। আগের দিন অর্থাৎ ১৪ অগস্ট পাক অধিকৃত কাশ্মীরের মুজফফরাবাদে জাতীয় পতাকা তোলেন ইমরান। পরের দিন সেই মুজফফরাবাদেই দেখা যায়, হাজারেরও উপর হিজবুল মুজাহিদ্দিন সমর্থক ভারত-বিরোধী স্লোগান দিয়ে মিছিল করছে।

Comments are closed.