মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫

মাঝরাস্তায় জন্ম নিল শিশু, পরনের কাপড় খুলে প্রসূতির আবরু রাখলেন পথচারী নারীরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ঘানার বিয়াকোয়ে জেলার ওটি নামের  এলাকা দিয়ে মেডিক্যাল অফিসার রিটা ওউরাপা আর নার্স রোজ আইভর  স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিদর্শনে যাচ্ছিলেন দাম্বাই ও এনকোয়ান্তায়।
হঠাৎ নার্স রোজের নজরে আসে সামনের রাস্তার পাশে পড়ে আছে একটি স্কুটি। তার পাশে অচেতন এক যুবতীর দেহ। অ্যাকসিডেন্ট হয়েছে ভেবে ড্রাইভারকে গাড়ি থামাতে বলে ফার্স্ট এইড বক্স  নিয়ে নার্স রোজ দৌড়েছিলেন যুবতীটির কাছে।

কাছে গিয়ে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন রোজ। যুবতীটি  আসন্নপ্রসবা। রাস্তার মাঝেই তাঁর প্রসব হতে শুরু করেছিল। চিৎকার করে সঙ্গীদের ডেকেছিলেন রোজ। তাঁর চিৎকারে, আশেপাশে মানুষের ভিড় জমতে শুরু করেছিল।

ফার্স্ট এইড বক্স সঙ্গেই ছিল কিন্তু ছিল না আড়াল। অথচ গর্ভের শিশুটি রাস্তার ধুলোতেই প্রায় ভূমিষ্ঠ হয়ে গেছে। এই অবস্থায় যুবতীটিকে নড়ানোর উপায় নেই। কিন্তু শুশ্রুষায় দেরি করলে মা ও শিশু উভয়েরই প্রাণহানি হতে পারে, রাস্তার ধূলায় থাকা জীবাণুর সংক্রমণে।

সেখানেই চিকিৎসা শুরু করে দিয়েছিলেন ১৫ বছরের অভিজ্ঞ নার্স রোজ। নিজের মাথার ওড়নাটা খুলে মায়ের নাড়িতে আটকানো শিশুটিকে শুইয়ে দিয়েছিলেন কাপড়টির ওপর।  রোজের পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন পথচারী নারীরা। তাঁদের পরনের কাপড় খুলে আড়াল করেছিলেন। রাস্তার মাঝে তৈরি করেছিলেন লেবার রুম। নিজেদের আবরু ঢেকেছিলেন সেই পর্দার আড়ালে।

নার্স রোজ কেটেছিলেন নাড়ি এবং করেছিলেন মা ও সদ্যোজাতর শুশ্রুষা। অভাবী এলাকা। তবুও কেউ ছুটে গিয়ে এনে দিয়েছিল গরম জল। কেউ এনে দিয়েছিল মায়ের জন্য গরম দুধ। কেউ শিশুটির জন্য এনে দিয়েছিল পরিস্কার কাপড়। মা আর শিশু একটু ধাতস্থ হবার পর নার্স রোজের গাড়ি দুজনকে নিয়ে ছুটেছিল হাসপাতালের পথে।

Comments are closed.