প্রয়াত প্রবীণ সিপিআই নেতা ও প্রাক্তন সাংসদ গুরুদাস দাশগুপ্ত

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চলে গেলেন বর্ষীয়াণ সিপিআই নেতা তথা এক সময়ের লড়াকু শ্রমিক নেতা গুরুদাস দাশগুপ্ত। আজ সকালে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৩ বছর। তাঁর পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, হার্ট ও কিডনির সমস্যায় অনেকদিন ধরেই ভুগছিলেন তিনি।

১৯৩৬ সালের ৩ নভেম্বর বাংলাদেশের বরিশালে জন্মগ্রহণ করেন গুরুদাস দাশগুপ্ত। ১৯৮৫ সালে প্রথমবার রাজ্যসভার সাংসদ হন তিনি। ২০০০ সাল পর্যন্ত পরপর তিনবার রাজ্যসভার সাংসদ হয়েছিলেন তিনি। ২০০১ সালে শ্রমিক সংগঠন অল ইন্ডিয়া ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। প্রায় ২৫ বছর সংসদীয় জীবন গুরুদাসবাবুর। পরে ২০০৪ সালে পাঁশকুড়া ও ২০০৯ সালে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্র থেকে তিনি জয়ী হন। ওই বছরই সংসদে সিপিআইয়ের লোকসভার নেতা হিসেবেও মনোনীত হন।

এক সময়ে সংসদের উচ্চকক্ষে ও পরে নিম্নকক্ষে তথা লোকসভায় শাসক দলের ভীতির কারণ ছিলেন গুরুদাসবাবু। কখনও প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারকে সওয়াল করতেন তাঁর স্বভাবসুলভ গাম্ভীর্যে, কখনও মুলতবি প্রস্তাবের বিতর্কে অংশ নিয়ে তুখোড় বাগ্মীতায় জেরবার করে দিতেন শাসক শিবিরকে। এমনকি প্রথম ইউপিএ সরকারকে যখন বামেরা বাইরে থেকে সমর্থন করছে, তখনও সরকারকে রেয়াত করে চলেননি তিনি। অতীতে শেয়ার কেলেঙ্কারি থেকে শুরু করে দ্বিতীয় ইউপিএ জমানায় স্পেকট্রাম কেলেঙ্কারি– সবেতেই সরকার বিরোধিতায় গুরুদাসবাবু ছিলেন অন্যতম মুখ। সংসদের অলিন্দে কিংবদন্তি হয়ে গিয়েছিল তাঁর লাল রঙের সোয়েটার।

শেষ ট্রাম

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More