বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪

কচুয়া ধামে দুর্ঘটনার খবর শুনেই হাসপাতালে মুখ্যমন্ত্রী

  • 56
  •  
  •  
    56
    Shares

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কচুয়া ধামে আহতদের দেখতে প্রথমে ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরে যান এসএসকেএমে। কথা বলেন মৃতদের পরিবারের সঙ্গে। আহতদের চিকিৎসা ঠিকমতো হচ্ছে কি না সে খবর নেন। পরে তিনি জানান, মৃতদের পরিবারকে পাঁচ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। গুরুতর আহতদের দেওয়া হবে এক লক্ষ টাকা। আর অল্প আহতরা পাবেন ৫০ হাজার টাকা।

মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “প্রবল বৃষ্টির জন্য এই ঘটনা। প্রচুর পুণ্যার্থীর ভিড় ও হুড়োহুড়ির মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে। আপত্তিকর অবস্থা এড়াতে পরের বার থেকে আরও বেশি পুলিশ মোতায়েন করা হবে। ”

বৃহস্পতিবার মাঝরাতে কচুয়া ধামে ঢোকার মূল ফটকের বাইরে পাঁচিল ভেঙে পড়ে মৃত্যু হয় অন্তত পাঁচ জনের। আহত ২৭ জনের মধ্যে আরও বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সন্ধে থেকেই মানুষের ঢল নামে কচুয়ার লোকনাথ ধামে। রাত যত বাড়ে বাড়তে থাকে ভিড়ের চাপ। আচমকাই মন্দিরে ঢোকার মুখে  হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে রাস্তার একদিকের পাঁচিল। লাখো লোকের ভিড়ে তীব্র আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। প্রাণ বাঁচাতে শুরু হয়ে যায় ছোটাছুটি। পাঁচিল চাপা পড়ে জখম হন বেশ কয়েকজন। পাশাপাশি পদপিষ্টও হয়ে জখম হয়েছেন আরও অনেকে।

আহতদের উদ্ধার করে প্রাথমিকভাবে বসিরহাট জেলা হাসপাতাল, ধান্যকুড়িয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাঁদের পাঠানো হয়  এসএসকেএম, নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ ও ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ  হাসপাতালে। সেখানেই মৃত্যু হয় চার জনের।

আরও পড়ুন:

ভিড়ের চাপে কচুয়া ধামে ধসে পড়ল পাঁচিল, চার জনের মৃত্যু, জখম বহু

Comments are closed.