রবিবার, জানুয়ারি ১৯
TheWall
TheWall

আগে ভিভিপ্যাট কাউন্টিং করতে হবে, কংগ্রেস-তৃণমূল সব বিরোধীদের দাবি নির্বাচন কমিশনে

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বুথ ফেরত সমীক্ষার ফল প্রকাশ হতেই নির্বাচন কমিশনের উপর চাপ বাড়িয়ে দিল কংগ্রেস-তৃণমূল সহ বাইশটি বিরোধী দল। তাঁদের দাবি, প্রতিটি লোকসভা কেন্দ্রে ভোট গণনার সময় আগে পাঁচটি ভিভিপ্যাট তথা ভোটার ভেরিফাইড পেপার অডিট ট্রেইল মেশিনের গণনা করতে হবে। তার পর যেন ইভিএম গণনা শুরু হয়। শুধু তা নয়, তাঁদের এও বক্তব্য, ওই পাঁচটি ভিভিপ্যাট মেশিনের গণনার ফলের সঙ্গে ভোটিং মেশিনের গণনার ফলের গরমিল হলে একশ শতাংশ ভিভিপ্যাটই গণনা করতে হবে।

মঙ্গলবার সকালেই সুপ্রিম কোর্ট একটি মামলার প্রসঙ্গে জানিয়ে দিয়েছে, একশ শতাংশ ভিভিপ্যাট গণনার মতো নির্বুদ্ধিতার মানে নেই। সুতরাং কমিশন যা ঠিক করেছে তাই হবে। তার পরেও তৃণমূল, কংগ্রেস সহ বাইশটি বিরোধী দলের প্রতিনিধিরা এ দিন নির্বাচন সদনে গিয়ে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরার সঙ্গে দেখা করেন।

ইভিএম মেশিনে কারচুপি হচ্ছে কিনা তা দেখার জন্যই ভিভিপ্যাট মেশিন চালু করা হয়েছিল। এর ফলে ভোটাররা দেখতে পান তাঁর ভোট ঠিক জায়গায় পড়ছে কিনা। উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা ভোটে ইভিএম মেশিনে কিছু গণ্ডগোলের পর সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছিল, প্রতিটি কেন্দ্র ওয়াড়ি ১ টি ভিভিপ্যাট গণনা করে দেখতে হবে।

পরে কমিশন ঠিক করেছে, লোকসভা কেন্দ্রের আওতায় যে কোনও পাঁচটি ভিভিপ্যাট গণনা করা হবে। সেই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ভোটিং মেশিনের গণনা হবে। তার পর মিলিয়ে দেখা হবে ওই ভোটিং মেশিন ও ভিভিপ্যাটের গণনার মধ্যে কোনও গরমিল রয়েছে কিনা। তবে কমিশন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিল, আগে সব ইভিএমের গণনা শেষ হবে। তার পর পাঁচটি ভিভিপ্যাটের গণনা হবে। নইলে গণনা প্রক্রিয়া খামোখা দেরি হবে।

কিন্তু বিরোধীরা এ দিন দাবি করেন, আগে ভিভিপ্যাট গণনা করতে হবে। অভিষেক বলেন, গোটা লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে ৫ টি ভিভিপ্যাটে গণনার কথা বলা হয়েছে। মানে বালতি থেকে এক বাটি জল তুলে পরীক্ষা করা হবে। ওই নমুনায় গরমিল থাকলে বুঝতে হবে গোটা বালতির জলেই সমস্যা রয়েছে। তাই আমরা দাবি করেছি, শুরুতেই গরমিল পেলে সব ভিভিপ্যাট গুণে দেখতে হবে।

তবে কমিশন এখনও তাঁদের কোনও কথা দেয়নি। অভিষেক জানান, কমিশনের কর্তারা তাঁদের আশ্বাস দিয়েছেন যে এ ব্যাপারে কাল সকালে তাঁরা ফের বৈঠকে বসবেন। তার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

Share.

Comments are closed.