টাইটান-এসবিআইয়ের যুগলবন্দিতে ডিজিটাল চমক, ছোঁয়া বাঁচিয়ে হাতের ঘড়ি দিয়েই হবে স্মার্ট পেমেন্ট

করোনা কালে সংস্পর্শ বাঁচিয়ে এবং নিরাপত্তা বজায় রেখে কনট্যাক্টলেস লেনদেনের উপরেই বেশি জোর দেওয়া হচ্ছে। সেই কাজেই গতি আনল টাইটান ও এসবিআইয়ের যুগলবন্দি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কার্ড ছোঁয়ানোর দরকার নেই। হাতের ডিজাইনার ঘড়ি দিয়েই দাম মেটানো যাবে। ডিজিটাল লেনদেনে নতুন চমক আনল টাইটান কোম্পানি। জোট বেঁধেছে স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়াও। ডিজিটাল ভারতে এই প্রথমবার ‘কনট্যাক্টলেস পেমেন্ট ওয়াচ’ নিয়ে এসে চমকে দিল টাইটান।

করোনা কালে সংস্পর্শ বাঁচিয়ে এবং নিরাপত্তা বজায় রেখে কনট্যাক্টলেস লেনদেনের উপরেই বেশি জোর দেওয়া হচ্ছে। সেই কাজেই গতি আনল টাইটান ও এসবিআইয়ের যুগলবন্দি। কনট্যাক্টলেস পেমেন্টের অনেক পদ্ধতি দেশে আছে। তবে হাতের ঘড়ি দিয়েও যে দাম মেটানো যাবে সেটাই নতুন চমক। টাইটান ঘরানার ঝাঁ চকচকে স্টাইলিশ ঘড়ি এবং তার মধ্যেই রয়েছে ডিজিটাল লেনদেনের প্রযুক্তি। টাইটান ও এসবিআইয়ের এই ভাবনাই অভিনব।

টাইটান জানিয়েছে, ২০০০ টাকা অবধি লেনদেনে কার্ডের পিন নম্বর দেওয়ার দরকার পড়বে না। হাতের ঘড়ি পয়েন্ট অব সেলে (পিওএস) মেশিনের সামনে নিয়ে গেলেই পেমেন্ট হয়ে যাবে। সেটা কীভাবে? তার জন্য এসবিআইয়ের ইয়োনো অ্যাপ (YONO SBI) ডাউনলোড করতে হবে। এই অ্যাপেই যাবতীয় কারিগরি থাকবে। এবার টাইটান-এসবিআইয়ের নতুন ঘড়ি হাতে পড়লে এই অ্যাপের সঙ্গে তার একটা যোগাযোগ তৈরি হবে। প্রযুক্তির এই মিশেলেই ডিজিটাল পেমেন্ট হয়ে যাবে সহজেই এবং সংস্পর্শ বাঁচিয়ে। অনেকেই ভাবতে পারেন এতে সুরক্ষা কতটা থাকবে। তার জন্য টাইটান ও এসবিআই দু’তরফেই জানানো হয়েছে, ঘড়ির মধ্যে থাকবে সার্টিফায়েড নিয়ার-ফিল্ড কমিউনিকেশন (এনএফসি) চিপ। এই চিপ ঘড়ির স্ট্র্যাপের সঙ্গে বিশেষ টেকনোলজিতে আটকানো থাকবে। কনট্যাক্টলেস পেমেন্টের কাজ করবে ঘড়িতে লাগানো এই চিপ। আলাদা করে কার্ড ছুঁয়ে পেমেন্ট করার দরকার পড়বে না।

টাইটান জানিয়েছে, প্রায় ২০ লক্ষ কনট্যাক্টলেস মাস্টার-কার্ডের সুবিধাযুক্ত পয়েন্ট-অব সেল মেশিনে কাজ করতে পারবে এই নতুন ডিজাইনার ঘড়ি। ডিজিটাল লেনদেনে সুবিধাই শুধু নয়, স্টাইলের ব্যাপারেও খেয়াল রেখেছে টাইটান। পুরুষদের জন্য তিন রকম ডিজাইনের ও মহিলাদের জন্য দু’রকম ডিজাইনের ঘড়ি বাজারে এনেছে তারা। স্টাইলে আছে আভিজাত্য, রঙেও খাসা। দামও নাগালের মধ্যেই ২৯৯৫ টাকা থেকে ৫৯৯৫ টাকার মধ্যে।

টাইটানের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সি কে ভেঙ্কটরমন বলেছেন, “টাইটান সবসময়েই অভিনব কিছু করার চেষ্টা করে, এবারও তাই করেছে। ডিজাইনে নতুনত্ব যেমন এসেছে তেমনি ডিজিটাল পেমেন্টের সুবিধার জন্য সহযোগিতা করেছে এসবিআই। নিউ নর্মালে ছোঁয়া বাঁচিয়ে কনট্যাক্টলেস পেমেন্টের এই সুবিধা গ্রাহকদের মন জয় করবে বলেই আশা করছি।”

এসবিআইয়ের চেয়ারম্যান রজনীশ কুমারের কথায়, “ভারতে প্রথমবার কনট্যাক্টলেস পেমেন্ট ওয়াচ আনল টাইটান, আর এই যাত্রায় শরিক পেতে পেরে আমরা গর্বিত। এর সুবিধা অনেক। এসবিআইয়ের ইয়োনো গ্রাহকরা যেমন লাভবান হবেন তেমনি টাইটানের মনকাড়া ডিজাইনার ঘড়িও হাতে উঠবে। ডিজিটাল লেনদেনে নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে পরিচিত হবে পারবেন গ্রাহকরা।”

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More